kalerkantho

সোমবার । ৩ মাঘ ১৪২৮। ১৭ জানুয়ারি ২০২২। ১৩ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

৪৩ বছর পরের অন্য জীবনে

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৪ ডিসেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



৪৩ বছর পরের অন্য জীবনে

মুক্তির পর বাইরে এসে কথা বলেন কেভিন স্ট্রিকল্যান্ড। ছবি : এএফপি

‘মনে হচ্ছিল আমি যেন এক মহাকাশ যুগে ঢুকেছি, যে জগত্টা আমার মোটেও চেনা নয়।’

দীর্ঘ ৪৩ বছর পর বিনা দোষে কারাগারে কাটানোর পর বাইরের আলো-হাওয়ায় মুক্তি পেয়ে কথাটি বলেছিলেন কেভিন স্ট্রিকল্যান্ড।

সেই ১৯৭৯ সালে মিসৌরি অঙ্গরাজ্যে তিন-তিনটি হত্যাকাণ্ডের দায়ে কারাদণ্ড হয়েছিল স্ট্রিকল্যান্ডের। অপরাধ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত না হওয়ায় সম্প্রতি অভিযোগ থেকে অব্যাহতি দিয়ে মুক্তি দেওয়া হয়েছে তাঁকে। ১৯৭৯-র তরতাজা তরুণ কেভিনের বয়স এখন ৬২।

কারাগারের আর দশটা দিনের মতোই একদিন টিভিতে সিরিয়াল দেখছিলেন। হঠাৎ কানে এলো কয়েকজন কয়েদির শোরগোল। একটু পরই দরজায় জোরে জোরে আঘাত। দরজা খুলতেই সবাই একসঙ্গে বলল, ‘তুমি ছাড়া পাচ্ছ! মুক্তি পাচ্ছ তুমি।’

‘জেলে সারাক্ষণ সতর্ক থাকার অভ্যাস হয়ে যায়। কয়েদিদের প্রায়ই মনে হয় কখন কী হয়! রাতে আমার ঘুম গভীর হতো না। ভুগতাম অজানা আতঙ্কে’—মুক্তির পর সাংবাদিকের সঙ্গে আলাপে বলছিলেন স্ট্রিকল্যান্ড।

কিছুদিন আগে ছাড়া পেয়েও এখনো বিষয়টি মন থেকে ঝেড়ে ফেলতে পারেননি স্ট্রিকল্যান্ড। একজন করমর্দন করতে এলে তাঁকে জিজ্ঞেস করেছিলেন, ‘কী চান আপনি?’ তবে মোটের ওপর দুনিয়াটা আগের মতোই লাগছে তাঁর কাছে। শুধু বেশ কিছু ব্যাপার শিখতে হচ্ছে, এই যা। স্মার্টফোনের ব্যবহার সেগুলোর একটি। রপ্ত করছেন ভাববিনিময়ের ইমোজিগুলো। বিছানাকে অবশ্য এখনো মুখ ফসকে ‘বাংক’ বলে ফেলেন। রুমকে বলছেন ‘সেল’। ৪৩ বছরের অভ্যাস বলে কথা!

সূত্র : বিবিসি।



সাতদিনের সেরা