kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৩ মাঘ ১৪২৮। ২৭ জানুয়ারি ২০২২। ২৩ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

‘বিষাক্ত’ সার নিয়ে শ্রীলঙ্কা ও চীনের দ্বন্দ্ব চরমে

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৪ নভেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শ্রীলঙ্কার কর্তৃপক্ষ চীন থেকে সার নিয়ে আসা একটি জাহাজকে তাদের জলসীমা ত্যাগ করতে বলেছে। কিন্তু জাহাজটি শ্রীলঙ্কার জলসীমাতেই অবস্থান করছে।

চীন থেকে আসা ওই সার ‘বিষাক্ত’ উল্লেখ করে শ্রীলঙ্কা তা ফেরত পাঠাতে চায়। এরই মধ্যে দেশটির একটি আদালত রাষ্ট্রীয় পিপলস ব্যাংককে ওই সার বাবদ অর্থ ছাড় করা বন্ধ করতে বলে।

বিজ্ঞাপন

কিন্তু চীনের প্রতিষ্ঠান তা মানতে রাজি নয়। এ নিয়ে দুই দেশের মধ্যে চরম টানাপড়েন চলছে।

গত মে মাসে শ্রীলঙ্কার সরকার দেশটিকে বিশ্বের প্রথম সম্পূর্ণ জৈব কৃষির দেশে পরিণত করার লক্ষ্যে সব রাসায়নিক সারের আমদানি নিষিদ্ধ ঘোষণা করে। এরপর দেশটি চীনের প্রতিষ্ঠান কিংদাও সিউইন বায়োটেক গ্রুপের কাছে ৯৯ হাজার টন জৈব সারের ক্রয়াদেশ দেয়। ওই ক্রয়াদেশের প্রথম চালানে ২০ হাজার টন জৈব সার নিয়ে হিপো স্পিরিট নামের ওই জাহাজটি শ্রীলঙ্কায় আসে।

শ্রীলঙ্কার বিজ্ঞানীরা বলছেন, যে সার এসেছে, তা শস্যের উপকারে আসার বদলে ক্ষতি করতে পারে। ওই সারের মধ্যে ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া রয়েছে বলে জানান তাঁরা।

শ্রীলঙ্কার কৃষি বিভাগের মহাপরিচালক ড. অজন্তা ডি সিলভা বলেন, ‘আমাদের নমুনা পরীক্ষা বলছে, এই সার জীবাণুমুক্ত নয়। আমরা এগুলোর মধ্যে এমন কিছু ব্যাকটেরিয়া পেয়েছি, যেগুলো গাজর ও আলুর মতো শস্যের জন্য ক্ষতিকর’

হিপো স্পিরিটের মালপত্র যেহেতু শ্রীলঙ্কার জৈব ?সুরক্ষার জন্য হুমকি হিসেবে আবির্ভূত হয়েছে, তাই এগুলোকে গ্রহণ করা যায় না বলে মত দেন দেশটির বিজ্ঞানীরা।

এই সিদ্ধান্তে তীব্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে কিংদাও সিউইন। সূত্র : বিবিসি।



সাতদিনের সেরা