kalerkantho

মঙ্গলবার । ১১ মাঘ ১৪২৮। ২৫ জানুয়ারি ২০২২। ২১ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

করোনা মহামারি

ত্রিশের কম বয়সীদের জন্য মডার্নার টিকা চায় না জার্মানি

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১১ নভেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



৩০ বছরের কম বয়সী ব্যক্তিদের মডার্নার তৈরি করোনাভাইরাসের টিকা না নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছে জার্মানির স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ। গতকাল বুধবার আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের সংবাদে এ তথ্য জানানো হয়।

মডার্নার টিকা গ্রহণে হৃদযন্ত্রের প্রদাহের সামান্য ঝুঁকি রয়েছে, এমন তথ্যের পরিপ্রেক্ষিতে জার্মানির স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তবে ৩০ বছরের বেশি বয়সীদের জন্য এ পরামর্শ প্রযোজ্য নয়।

বিজ্ঞাপন

করোনাভাইরাসের টিকাবিষয়ক জার্মানির স্কিটো কমিশন জানায়, কম বয়সীরা এমআরএনএ টিকা গ্রহণ করলে হৃদযন্ত্রে প্রদাহ এবং হৃৎপিণ্ডের আশপাশের টিস্যুতে প্রদাহ হয়। তবে মডার্নার টিকা গ্রহণকারীদের ক্ষেত্রে এই ঝুঁকিটি বেশি দেখা যাচ্ছে।

মডার্নার টিকা গ্রহণে নিরুৎসাহ করার পর কম বয়সীদের ফাইজার-বায়োএনটেকের টিকা দেওয়ার  কথা বলছে স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ। ঠিক এক দিন আগে ফ্রান্সও একই নির্দেশনা জারি করে।

জার্মানির ফেডারেল ইনস্টিটিউট ফর ভ্যাকসিন অ্যান্ড বায়োমেডিসিন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার পাশাপাশি ওষুধের নানা প্রতিবন্ধকতা নিয়ে গবেষণা করে। মূলত তাদের তথ্য-উপাত্তের ভিত্তিতেই এই নির্দেশনা জারি করা হয়।

ইউরোপের ৬-১১ বছর বয়সীদের জন্য টিকা অনুমোদনের আবেদন 

ছয় থেকে ১১ বছর বয়সী শিশুদের ওপর করোনার টিকা প্রয়োগে ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) ওষুধ নিয়ন্ত্রক সংস্থার কাছে আবেদন করেছে মডার্না। মঙ্গলবার আনুষ্ঠানিকভাবে তারা এ আবেদন জানায়।

মডার্নার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) স্টেফান ব্যানসেল বলেন, ‘ইউরোপীয় মেডিসিন এজেন্সির (ইএমএ) কাছে শিশুদের জন্য টিকার অনুমোদন চাওয়ায় আমরা বেশ খুশি। শিশুদের জন্য এবারই প্রথম আমরা কোনো আবেদন করলাম। ’

মডার্নার দুই ডোজের টিকা প্রাপ্তবয়স্কদের জন্য ১০০ গ্রাম করে দেওয়া হলেও শিশুদের চার সপ্তাহের বিরতিতে ৫০ মাইক্রোগ্রাম করে ডোজ দেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, ইউরোপে ১২ বছর কিংবা তার বেশি বয়সীদের টিকা প্রয়োগের অনুমতি পেয়েছে মডার্না।

ফ্রান্সে ৬৫ বছরের বেশি বয়সী ব্যক্তিদের করোনাভাইরাস প্রতিরোধী টিকার বুস্টার ডোজ বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। সামাজিক অনুষ্ঠানে যেতে কিংবা ভ্রমণ করতে বুস্টার ডোজের প্রমাণপত্র দেখাতে হবে। সূত্র : এএফপি।



সাতদিনের সেরা