kalerkantho

রবিবার । ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ২৮ নভেম্বর ২০২১। ২২ রবিউস সানি ১৪৪৩

কান্দাহারে মসজিদে হামলার দায় স্বীকার আইএসের

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৭ অক্টোবর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আফগানিস্তানের দক্ষিণাঞ্চলীয় কান্দাহার শহরে শিয়া মসজিদে আত্মঘাতী বোমা হামলার দায় স্বীকার করেছে ইসলামিক স্টেট (আইএস)। গতকাল শনিবার ওই হামলার দায় স্বীকার করে টেলিগ্রাম চ্যানেলে বিবৃতি প্রকাশ করে আইএস।

গত শুক্রবার কান্দাহার শহরের কেন্দ্রস্থলে অবস্থিত শিয়া মসজিদে জুমার নামাজ আদায়কালে বোমা বিস্ফোরণে ৪১ জন নিহত হন। এর আগের শুক্রবার উত্তরাঞ্চলীয় শহর কুন্দুজের এক শিয়া মসজিদে আত্মঘাতী বোমা হামলায় ৬০ জনেরও বেশি লোক নিহত হন। ওই হামলারও দায় স্বীকার করে জঙ্গিগোষ্ঠী আইএস।

কান্দাহারে হামলার দায় স্বীকার করে দেওয়া বিবৃতিতে আইএস জানায়, আইএসের খোরাসান শাখার (আইএস-কে) দুজন আত্মঘাতী বোমা হামলাকারী মসজিদের পৃথক জায়গায় ওই হামলা চালায়।

যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংঘাত বিশ্লেষক প্রতিষ্ঠান এক্সট্র্যাক বলেছে, তালেবান কাবুলের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার পর কান্দাহারে এটাই ছিল আইএস-কের প্রথম হামলা। এক্সট্র্যাকের গবেষক আবদুল সাইদ বলেন, ‘তালেবানের আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার দাবিকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিল আইএস-কের এই হামলা। তালেবান যদি কান্দাহারকে আইএসের হামলার হাত থেকে রক্ষা করতে না পারে, তবে তারা পুরো দেশ কিভাবে রক্ষা করবে?’

আফগানিস্তান থেকে বিদেশি সেনা প্রত্যাহারের আগেই গত আগস্টের মাঝামাঝি সময়ে যুক্তরাষ্ট্র সমর্থিত সরকারকে উত্খাত করে দেশটির নিয়ন্ত্রণ নেয় তালেবান। শিয়াদের ওপর নিপীড়ন চালানোর ইতিহাস তালেবানদেরও রয়েছে। তবে ক্ষমতা নেওয়ার পর তালেবান দেশটিকে স্থিতিশীল রাখার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। গত সপ্তাহে কুন্দুজে হামলার পর তালেবান সংখ্যালঘু শিয়া সম্প্রদায়কে রক্ষা করার প্রতিশ্রুতি দেয়। আফগানিস্তানের মোট জনসংখ্যার প্রায় ১০ শতাংশ শিয়া। তাদের অনেকে আদিবাসী হাজারা সম্প্রদায়ের মানুষ। কয়েক দশক ধরে দেশটিতে তারা নিপীড়নের শিকার।

এর আগে ২০১৭ সালের অক্টোবরে আইএসের এক আত্মঘাতী হামলাকারী কাবুলের পশ্চিমে একটি শিয়া মসজিদে হামলা চালায়। ওই হামলায় নিহত হন ৫৬ জন। সূত্র : এএফপি।



সাতদিনের সেরা