kalerkantho

রবিবার । ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ২৮ নভেম্বর ২০২১। ২২ রবিউস সানি ১৪৪৩

ব্রিটিশ এমপির মৃত্যু ‘সন্ত্রাসী হামলায়’

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৭ অক্টোবর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ব্রিটিশ এমপির মৃত্যু ‘সন্ত্রাসী হামলায়’

ছুরিকাঘাতে ব্রিটিশ এমপি ডেভিড অ্যামেসের মৃত্যুতে শোকগ্রস্ত শুভাকাঙ্ক্ষীরা গতকাল লেই অন সি শহরের বেলফেয়ার মেথডিস্ট চার্চে ফুল দেন। ছবি : এএফপি

ব্রিটেনের ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভ পার্টির এমপি স্যার ডেভিড অ্যামেস হত্যাকাণ্ডে ইসলামপন্থী উগ্রবাদী জড়িত জানিয়ে হামলাটিকে ‘সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড’ আখ্যা দিয়েছে দেশটির মেট্রোপলিটন পুলিশ।

ডেভিড অ্যামেস গত শুক্রবার এসেক্স কাউন্টির লেই-অন-সি শহরের একটি গির্জায় ছুরিকাঘাতে নিহত হন। এ ঘটনায় সন্দেহভাজন ২৫ বছর বয়সী এক যুবককে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এসেক্স কাউন্টি পুলিশ ও পূর্বাঞ্চলীয় বিশেষ অপারেশন ইউনিটের সঙ্গে কাউন্টার টেররিজম পুলিশ এ ঘটনার তদন্তে নেমেছে।

কাউন্টির পুলিশপ্রধান বিজে হারিংটন গতকাল শনিবার বলেন, ‘প্রাথমিক তদন্তে ইসলামী উগ্রবাদের সম্ভাব্য অনুপ্রেরণার সম্পর্ক উন্মোচন হয়েছে।’ তবে তদন্ত প্রাথমিক পর্যায়ে রয়েছে। 

ব্রিটিশ সরকারের একটি সূত্র জানিয়েছে, সন্দেহভাজন সোমালীয় বংশোদ্ভূত ওই যুবক আগে থেকেই ঝুঁকিপূর্ণ উগ্রবাদীদের তালিকাভুক্ত।

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন এবং লেবার পার্টির নেতা স্যার কেইর স্টারমার গতকাল সকালে অ্যামেসের প্রতি শ্রদ্ধা জানান। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রীতি প্যাটেল ও হাউস অব কমনসের স্পিকার স্যার লিন্ডসে হয়েলও তাঁর প্রতি শ্রদ্ধা জানান। অ্যামেসকে রাজনীতিতে সবচেয়ে দয়ালু, সুন্দর ও ভদ্র মানুষদের একজন অভিহিত করেছেন প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। এ ছাড়া স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রীতি প্যাটেল বলেন, ‘ডেভিড অ্যামেসের ওপর আক্রমণ গণতন্ত্রের ওপর অনর্থক আক্রমণ।’

ডেভিড অ্যামেসের মৃত্যুর পর ব্রিটিশ এমপিদের মধ্যে উদ্বেগ ও ভয় বেড়েছে। ২০১৬ সালে গুলিতে প্রাণ হারানো লেবার পর্টির এমপি জো কক্সের বোন ও বর্তমান এমপি কিম লিডবিটার জানান, অ্যামেসের হত্যাকাণ্ডের পর তাঁর স্বামী তাঁকে দায়িত্ব ছেড়ে দিতে বলছেন।

কনজারভেটিভ এমপি টোবিয়াস এলউড জানান, নির্বাচনী এলাকায় সরাসরি বৈঠক এড়িয়ে চলার পরামর্শ দেবেন তিনি। টোবিয়াস পার্লামেন্ট ভবনের কাছে ২০১৭ সালে ছুরিকাঘাতে আহত পুলিশ কর্মকর্তাকে বাঁচাতে গিয়েছিলেন।

ব্রিটিশ এমপিদের বিরুদ্ধে হুমকি তদন্তে পুলিশের একটি বিশেষ ইউনিটের হিসাবে দেখা গেছে, ২০১৬ সাল থেকে গত বছর পর্যন্ত আইন প্রণেতারা ৬৭৮টি অপরাধের শিকার হয়েছেন। অন্য একটি পরিসংখ্যান বলছে, ২০১৮ সাল থেকে এই হার আরো বেড়েছে।

অ্যামেসের হত্যাকাণ্ডের পর ব্রিটিশ পার্লামেন্টের ৬৫০ এমপির নিরাপত্তা পুনর্মূল্যায়ন করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রীতি প্যাটেল এ সম্পর্কে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। সূত্র : এএফপি, বিবিসি।



সাতদিনের সেরা