kalerkantho

সোমবার । ৯ কার্তিক ১৪২৮। ২৫ অক্টোবর ২০২১। ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

অবাধ উন্মুক্ত সাগরপথের অঙ্গীকার কোয়াড নেতৃত্বের

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ইন্দো-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলকে চীনের প্রভাবমুক্ত করে সেটা ‘অবাধ ও উন্মুক্ত’ করতে চান কোয়াড নেতারা। হোয়াইট হাউসে গত শুক্রবারের বৈঠক শেষে এক যৌথ বিবৃতিতে অস্ট্রেলিয়া, ভারত, জাপান ও যুক্তরাষ্ট্রের নেতারা এ ব্যাপারে অঙ্গীকার করেন।

জো বাইডেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব নেওয়ার পর কোয়াড্রিল্যাটারাল সিকিউরিটি ডায়ালগ তথা কোয়াডের নেতাদের সঙ্গে এটাই সশরীরে তাঁর প্রথম বৈঠক। এ বৈঠকের পর যৌথ বিবৃতিতে চার নেতা বলেন, ‘আমরা আইনের শাসন, নৌ ও আকাশপথে স্বাধীন চলাচল, বিতর্কের শান্তিপূর্ণ সমাধান, গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ এবং সব দেশের আঞ্চলিক অখণ্ডতার পক্ষে।’

এ ছাড়া এশিয়ায় করোনাভাইরাসের টিকা সরবরাহ করা এবং জলবায়ু পরিবর্তন রোধে নতুন উদ্যোগ গ্রহণ করার অঙ্গীকারও করেন কোয়াড নেতারা।

যৌথ বিবৃতিতে তো বটেই, নিজ নিজ বক্তব্যেও চার দেশের নেতারা সতর্কভাবে চীনের নাম নেওয়া এড়িয়ে যান। তবে চীনের ক্রমবর্ধমান অর্থনৈতিক, কূটনৈতিক ও সামরিক আধিপত্য ঠেকিয়ে ইন্দো-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের স্থিতিশীলতার বিষয়টি প্রাধান্য পেয়েছে তাঁদের প্রত্যেকের বক্তব্যে।

অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন বলেন, শক্তিশালী, স্থিতিশীল ও সমৃদ্ধ অঞ্চল গঠনে কাজ করছে কোয়াডের চার উদারপন্থী গণতান্ত্রিক দেশ।

জাপানের প্রধানমন্ত্রী ইয়োশিহিদে সুগার ভাষায়, শুক্রবারের বৈঠকের মধ্য দিয়ে অবাধ ও উন্মুক্ত ইন্দো-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চল গঠনে কোয়াড নেতাদের অভিন্ন লক্ষ্য প্রকাশ পেয়েছে।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি চার দেশ অভিন্ন গণতান্ত্রিক মূল্যবোধের অধিকারী বলে মন্তব্য করেন।

এ ছাড়া বৈঠকের আয়োজক মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেন, ‘আমাদের অন্যতম এই চার গণতান্ত্রিক দেশের সহযোগিতামূলক সম্পর্কের দীর্ঘ ইতিহাস রয়েছে। আমরা জানি, কিভাবে সংকট সমাধান করতে হয় এবং আমরা চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে যাচ্ছি।’

চীনের বিরুদ্ধে শক্তিশালী অবস্থান নিশ্চিত করতে গত ১৫ সেপ্টেম্বর যুক্তরাজ্য ও অস্ট্রেলিয়াকে নিয়ে অকাস শীর্ষক নতুন সামরিক জোট গড়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এরপর কোয়াডের কার্যক্রমও এগিয়ে নিতে তৎপর হয়েছেন বাইডেন। আনুষ্ঠানিকভাবে এটি কোনো সামরিক জোট না হলেও এশিয়ায় এর প্রভাব উল্লেখযোগ্য বলে মনে করেন পর্যবেক্ষকরা। সূত্র : এএফপি।



সাতদিনের সেরা