kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১২ কার্তিক ১৪২৮। ২৮ অক্টোবর ২০২১। ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

সংক্ষিপ্ত

যুক্তরাষ্ট্র-অস্ট্রেলিয়া থেকে রাষ্ট্রদূতদের ডেকে পাঠাল ফ্রান্স

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



যুক্তরাষ্ট্র ও অস্ট্রেলিয়া থেকে নিজের রাষ্ট্রদূতদের ডেকে পাঠিয়েছে ফ্রান্স। ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলে নতুন ত্রিপক্ষীয় নিরাপত্তা জোট গঠনের ঘটনায় ক্ষুব্ধ ফ্রান্স ওই দুটি দেশ থেকে নিজের রাষ্ট্রদূতদের ডেকে পাঠায়। ফ্রান্স এবারই প্রথম যুক্তরাষ্ট্র থেকে রাষ্ট্রদূতকে ডেকে পাঠাল। মিত্র দেশ থেকে রাষ্ট্রদূত ডেকে পাঠানোর ঘটনা খুবই বিরল। গত শুক্রবার এক বিবৃতিতে ফ্রান্সের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জঁ ইভ লো দ্রিয়াঁ জানান, প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাখোঁর নির্দেশনা অনুসারে যুক্তরাষ্ট্র ও অস্ট্রেলিয়া থেকে ফরাসি রাষ্ট্রদূতদের ডেকে পাঠানো হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্র ও অষ্ট্রেলিয়ার সঙ্গে নবগঠিত ‘অকাস’ জোটে যুক্তরাজ্যও আছে। দক্ষিণ চীন সাগরে বেইজিংয়ের ক্রমবর্ধমান প্রভাব ঠেকাতে নতুন এই নিরাপত্তা জোট হয়েছে। আর এতে ক্ষুব্ধ হয়েছে ফ্রান্স। ফ্রান্সের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য ফ্রান্সের পিঠে ছুরি মারার মতো কাজ করেছে। যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, তাঁরা একটি নিরাপত্তা চুক্তির আওতায় জোটের অংশীদার অস্ট্রেলিয়াকে পারমাণবিক শক্তিধর সাবমেরিন বানানোর প্রযুক্তি সরবরাহ করবেন। এই পদক্ষেপ চীনের হুমকি মোকাবেলায় কার্যকর ভূমিকা রাখবে বলেই তাঁরা ধারণা করছেন। ওয়াশিংটন ও লন্ডনের এই পদক্ষেপ চীনের পাশাপাশি ফ্রান্সকেও ব্যাপক ক্ষুব্ধ করেছে। নতুন ওই নিরাপত্তা চুক্তির কারণে ফ্রান্সের সঙ্গে অস্ট্রেলিয়ার সাবমেরিন নির্মাণসংক্রান্ত হাজার হাজার কোটি ডলারের যে চুক্তি ছিল তা বাতিল হয়ে গেছে। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন তাঁর পূর্বসূরি ডোনাল্ড ট্রাম্পের মতোই আচরণ করছেন মন্তব্য করে ফরাসি পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘এ রকম নিষ্ঠুর, একতরফা ও হুটহাট সিদ্ধান্ত আমাকে ট্রাম্পের কথা মনে করিয়ে দিচ্ছে।’ গত বুধবার বাইডেন, যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন ও অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন এ ত্রিপক্ষীয় জোটের ঘোষণা দেন। এর মাত্র কয়েক ঘণ্টা আগে ফ্রান্সকে নতুন জোটের কথা জানানো হয়। এতে ক্ষুব্ধ ফ্রান্স গত শুক্রবার এক বিবৃতিতে দুই দেশ থেকে রাষ্ট্রদূতদের ডেকে পাঠানোর খবর জানান। সূত্র : বিবিসি।



সাতদিনের সেরা