kalerkantho

মঙ্গলবার । ৩ কার্তিক ১৪২৮। ১৯ অক্টোবর ২০২১। ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

একটি গাছ বাঁচানোর লড়াই

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



একটি গাছ বাঁচানোর লড়াই

বিশ্বের সর্ববৃহৎ প্রাচীন গাছটিকে দাবানলের গ্রাস থেকে বাঁচাতে লড়াই করে যাচ্ছেন যুক্তরাষ্ট্রের দমকল বাহিনীর সদস্যরা। দাবানলের বিরুদ্ধে প্রচলিত লড়াইয়ের পাশাপাশি অগ্নিনিরোধক কম্বলে মুড়ে দেওয়া হয়েছে সেটাকে।

ক্যালিফোর্নিয়ার সেকোয়া ন্যাশনাল পার্কে প্রায় এক সপ্তাহ ধরে চলমান দাবানলে চার হাজার ৬০০ হেক্টরের মতো বনভূমি জ্বলে গেছে। এই দাবানলের কারণে হুমকির মুখে পড়েছে জায়ান্ট ফরেস্ট শীর্ষক দুই হাজার সেকোয়া গাছের অরণ্য। এগুলোর মধ্যে রয়েছে এমন পাঁচটি গাছ, যেগুলো আকারের দিক থেকে এই গ্রহের সবচেয়ে বড় গাছ এবং সেগুলোর কোনো কোনোটির বয়স তিন হাজার বছর। এই পাঁচটি সেকোয়া গাছের মধ্যে সবচেয়ে বড়টির নাম দেওয়া হয়েছে জেনারেল শারম্যান। অন্যান্য সেকোয়া গাছের পাশাপাশি সেটিকে বাঁচাতে বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছেন দমকল বাহিনীর সদস্যরা। এ লক্ষ্যে এরই মধ্যে সেটির গোড়ার অংশ অগ্নিনিরোধক কম্বলে পেঁচিয়ে দেওয়া হয়েছে। গত শুক্রবার এসব তথ্য জানান স্থানীয় দমকল বাহিনীর সদস্যরা। ২৭৫ ফুট উঁচু জেনারেল শারম্যানের পাশাপাশি বাকি সেকোয়া গাছগুলো রক্ষার ব্যাপারে তাঁরা আশাবাদী।

ক্যালিফোর্নিয়ায় শুষ্ক মৌসুমে প্রতিবছরই দাবানল দেখা দেয়। এ বছর দাবানলের পরিস্থিতি আরো ভয়াবহ। আঞ্চলিক দমকল বাহিনীর যোগাযোগ কর্মকর্তা মার্ক গেরেট বলেন, ‘আমাদের কয়েক শ দমকলকর্মী সর্বোচ্চ চেষ্টা করছেন এবং গাছগুলো রক্ষায় বাড়তি যত্ন নিচ্ছেন।’

এএফপি জানায়, ক্যালিফোর্নিয়ার রেডউড জাতের গাছগুলো বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু গাছ। উচ্চতায় সেগুলো ৩০০ ফুটের চেয়ে বড় হয়। উচ্চতায় রেডউডকে ছাড়াতে না পারলে আকৃতিগত দিক থেকে সেকোয়াই সর্ববৃহৎ। সেকোয়ার বাকল খুব পুরু হওয়ায় এবং এর শাখা-প্রশাখা কমপক্ষে ১০০ ফুট উঁচু থেকে শুরু হওয়ায় দাবানলে সাধারণ গাছগুলোর তেমন ক্ষতি হয় না। তবে মানবসৃষ্ট কারণে দাবানলের ভয়াবহতা যেভাবে বাড়ছে, তাতে সেকোয়ার আত্মরক্ষার কবজ কতটা কাজে দেবে, তা নিয়ে আশঙ্কায় আছেন দমকল কর্মীরা। আর তাই জেনারেল শারম্যানের গোড়া অ্যালুমিনিয়াম ফয়েলে মুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। সূত্র : এএফপি।



সাতদিনের সেরা