kalerkantho

রবিবার । ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ৫ ডিসেম্বর ২০২১। ২৯ রবিউস সানি ১৪৪৩

‘এটাই সেরা সিদ্ধান্ত’

পানশির ঘিরে ফেলেছে তালেবান

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



‘এটাই সেরা সিদ্ধান্ত’

আফগানিস্তান থেকে সরে আসা যুক্তরাষ্ট্রের জন্য ‘সবচেয়ে ভালো’ সিদ্ধান্ত ছিল বলে দাবি করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। আফগানিস্তানে দুই দশকের মার্কিন অভিযানের সফলতা নিয়ে যখন বিশ্বজুড়ে সমালোচনা চলছে, তখন আরেকবার নিজের সিদ্ধান্তের সাফাই গাইলেন জো বাইডেন।

এদিকে বিদেশি সেনামুক্ত আফগানিস্তানের দ্বিতীয় দিনে নিজেদের সামরিক শক্তি প্রদর্শন করতে গতকাল সামরিক কুচকাওয়াজের আয়োজন করে তালেবান। যে কান্দাহার থেকে তালেবানের আন্দোলনের সূত্রপাত, সেই শহরের একটি সড়কে গতকাল একের পর এক সামরিক যান দাঁড় করিয়ে রাখা ছিল। সরকারি সেনাদের সঙ্গে লড়াইয়ে এসব সামরিক যান নিজেদের কবজায় নেয় তালেবান। কয়েক দিন ধরে কান্দাহারের আকাশে ‘ব্ল্যাক হক’ যুদ্ধবিমানও দেখা গেছে। এর মানে হলো, আফগানিস্তানের পরাজিত সামরিক বাহিনীর কোনো পাইলট এখন বিমানটি চালাচ্ছেন। কারণ এ ধরনের যুদ্ধবিমান চালানোর মতো দক্ষ পাইলট তালেবানের নেই।

জাতিসংঘ সতর্ক করে দিয়ে বলেছে, সন্ত্রাসী গোষ্ঠী থেকে সরকারের দায়িত্ব পেতে যাওয়া তালেবানের কারণে আফগানিস্তানে মানবিক বিপর্যয় ঘটতে পারে। যদিও তালেবানের হাতে ক্ষমতা ছাড়ার পক্ষে আবার সাফাই করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। গত মঙ্গলবার জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে তিনি বলেন, ‘এটাই সঠিক সিদ্ধান্ত, বিচক্ষণ সিদ্ধান্ত, যুক্তরাষ্ট্রের জন্য সবচেয়ে ভালো সিদ্ধান্ত।’ তিনি বলেন, ‘সেখান থেকে চলে আসা কিংবা যুদ্ধের তীব্রতা বাড়ানো ছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের আর কোনো উপায় ছিল না।’

বিদেশি সেনারা চলে যাওয়ার পর কাবুল বিমানবন্দরের নিরাপত্তা নিয়ে সবচেয়ে বেশি অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছে। এরই মধ্যে বিমানবন্দর লক্ষ্য করে একাধিক হামলা চালিয়েছে তথাকথিত ইসলামিক স্টেটের আফগান শাখার (আইএস-কে) জঙ্গিরা। তুরস্ক এরই মধ্যে তালেবানকে প্রস্তাব দিয়েছে যে তারা বিমানবন্দরের রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব নিতে চায়। তালেবানও বিষয়টি নিয়ে তাদের সঙ্গে আলোচনা শুরু করেছে। এ বিষয়ে যেকোনো সময় সিদ্ধান্ত আসতে পারে। তুরস্ক জানিয়েছে, কাবুল বিমানবন্দরে ফ্লাইট চলাচল স্বাভাবিক করার আগে বেশ কিছু সংস্কারকাজ করতে হবে।

আফগানিস্তান থেকে এরই মধ্যে কয়েক দেশ নিজেদের দূতাবাস সরিয়ে নিয়েছে। জাপানের পর গতকাল নেদারল্যান্ডসও জানিয়েছে, তাদের আফগান দূতাবাস সরিয়ে কাতারে নেওয়া হয়েছে।

পানশির উপত্যকায় তালেবানের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ অব্যাহত রেখেছে ‘ন্যাশনাল রেসিসট্যান্স ফ্রন্ট’ (এনআরএফ)। তালেবান বলেছে, তাদের যোদ্ধারা এরই মধ্যে পুরো উপত্যকা ঘিরে ফেলেছে। যেকোনো সময় সেখানে পুরো দমে হামলা চালানো হবে। আলোচনার সুযোগও শেষ হয়ে গেছে বলে গতকাল টুইটার বার্তায় জানিয়েছেন তালেবান কর্মকর্তা আমির খান। রাজধানী কাবুল থেকে ৮০ কিলোমিটার উত্তরে অবস্থিত পানশির উপত্যকা এখনো তালেবান দখল করতে পারেনি। সূত্র : বিবিসি, এএফপি।



সাতদিনের সেরা