kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ আশ্বিন ১৪২৮। ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৫ সফর ১৪৪৩

মরিশাসে ভারতের কোনো সামরিক ঘাঁটি হচ্ছে না

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৬ আগস্ট, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আগালিগা দ্বীপে ভারতের সামরিক ঘাঁটি তৈরির কথা অস্বীকার করেছে মরিশাস সরকার। গত বুধবার সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয় ওই দ্বীপে কোনো ভারতীয় সামরিক ঘাঁটি তৈরি করা হচ্ছে না। এ সপ্তাহের শুরুতে সংবাদ সংস্থা আলজাজিরা এক প্রতিবেদনে জানায়, মরিশাসের এক হাজার কিলোমিটার উত্তরে অবস্থিত আগালিগা দ্বীপে বিমান ওঠা-নামার জন্য রানওয়ে ও দুটি জেটি নির্মাণ করা হচ্ছে। প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, সেখানে মূলত ভারতীয় সামরিক বাহিনীর ঘাঁটির জন্য এসব নির্মাণ করা হচ্ছে। মরিশাসের প্রধানমন্ত্রী প্রভিন্দ যুগনাথের যোগাযোগ উপদেষ্টা ক্যান আরিয়ান বলেন, সামরিক ঘাঁটি তৈরির জন্য ভারত এবং মরিশাসের মধ্যে এমন কোনো চুক্তি হয়নি। ২০১৫ সালে মরিশাস সফরে আসেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। সেই সময় ভারতে সঙ্গে একটি তিন কিলোমিটার রানওয়ে ও একটি জেটি তৈরির ব্যাপারে চুক্তি হয়। আরিয়ান এ ব্যাপারে বলেন, ভারতের সঙ্গে দুটি প্রকল্প চলমান আছে। এ প্রকল্পের আওতায় একটি রানওয়ে ও জেটি নির্মাণ করা হচ্ছে। তবে ভারত সামরিক বাহিনীর কাজে এগুলো ব্যবহার করবে না। এর আগে ১৯৬৫ সালে ব্রিটেনের সিদ্ধান্তে মরিশাস থেকে শাগোস দ্বীপ আলাদা হয়ে যায়। পরে ওই দ্বীপের দিয়াগো গার্সিয়ায় যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে মিলে একটি সামরিক ঘাঁটি স্থাপন করা হয়। আলজাজিরার প্রতিবেদনের জেরে আগালিগা দ্বীপের বাসিন্দাদের মধ্যে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। শাগোস দ্বীপের মতো আগালিগাও বেহাত হয়ে যাবে, এমন ভয় ঢুকেছে তাদের মনে। এদিকে শাগোস দ্বীপবাসীর আন্দোলন আবারও মাথা চাড়া দিয়ে উঠেছে। তারা অভিযোগ করেছে, ব্রিটেন সেখানে অবৈধ কার্যক্রম চালাচ্ছে এবং তাদের সেখান থেকে উচ্ছেদ করে দিচ্ছে। যদিও ব্রিটেন এ ব্যাপারে জোর দিয়ে বলেছে দ্বীপটি লন্ডনের সম্পত্তি এবং তারা যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ইজারা চুক্তি ২০৩৬ সাল পর্যন্ত নবায়ন করেছে।

সূত্র : এএফপি।



সাতদিনের সেরা