kalerkantho

রবিবার । ১১ আশ্বিন ১৪২৮। ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৮ সফর ১৪৪৩

মিয়ানমারে শিক্ষার্থীদের জান্তাবিরোধী বিক্ষোভ

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১ আগস্ট, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মিয়ানমারে সেনাবাহিনীর ক্ষমতা দখলের ছয় মাস পূর্তির দিনে মান্দালয়ে সামরিক জান্তার বিরুদ্ধে বিক্ষোভ দেখিয়েছে শিক্ষার্থীদের কয়েকটি দল। এদিকে নিউ ইয়র্কভিত্তিক মানবাধিকার সংগঠন হিউম্যান রাইটস ওয়াচ জান্তার বিরুদ্ধে মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগ এনেছে।

মিয়ানমারের গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত সরকারকে উত্খাত করে গত ১ ফেব্রুয়ারি দেশটির ক্ষমতা দখলে নেয় সেনাবাহিনী। সেই সামরিক অভ্যুত্থানের ছয় মাস পূর্ণ হয় গতকাল শনিবার। এদিন দেশটির দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর মান্দালয়ে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের ছোট ছোট দল মোটরবাইক চালিয়ে লাল ও সবুজ রঙের পতাকা উড়িয়ে সেনা শাসনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়েছে। মিয়ানমারে বেসামরিক শাসন ফেরাতে দর-কষাকষির অংশ হিসেবে সামরিক জান্তার সঙ্গে আলোচনার সম্ভাবনাও উড়িয়ে দিয়েছে তারা। ‘রক্তখেকোর সঙ্গে মধ্যস্থতা নয়’ লেখা ছিল তাদের হাতে থাকা এক প্ল্যাকার্ডে।

এদিকে গতকাল শনিবার নিউ ইয়র্কভিত্তিক হিউম্যান রাইটস ওয়াচ বলেছে, অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভ দমন ও বিরোধীদের গ্রেপ্তারে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী যে ধরনের সহিংসতার আশ্রয় নিয়েছে এবং নির্যাতন, খুনসহ যে ধরনের কর্মকাণ্ড করেছে, তা মানবাধিকারসংক্রান্ত আন্তর্জাতিক কনভেনশনগুলোর লঙ্ঘন।

হিউম্যান রাইটস ওয়াচের এশিয়াবিষয়ক পরিচালক ব্র্যাড অ্যাডামস বিবৃতিতে বলেন, ‘মিয়ানমারের জনগণের ওপর এসব হামলা মানবতাবিরোধী অপরাধ। যারা এর জন্য দায়ী তাদের জবাবদিহির আওতায় আনা উচিত।’

দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশটির সাম্প্রতিক ঘটনাবলির ওপর নজর রাখা সংগঠন অ্যাসিস্ট্যান্স অ্যাসোসিয়েশন ফর পলিটিক্যাল প্রিজনার্সের (এএপিপি) হিসাবে মিয়ানমারে অভ্যুত্থানের পর থেকে এ পর্যন্ত অন্তত ছয় হাজার ৯৯০ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। নিরাপত্তা বাহিনীর হাতে মারা গেছে ৯৩৯ জন।

মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী শুরু থেকেই এএপিপির দেওয়া গ্রেপ্তার-নিহতের সংখ্যা নিয়ে আপত্তি জানিয়ে আসছে। তারা তাদের বিরোধী গোষ্ঠীগুলোকে সন্ত্রাসী আখ্যা দিয়েছে; সংবিধান অনুযায়ীই ক্ষমতা নেওয়া হয়েছে বলেও দাবি করেছে তারা। সূত্র : রয়টার্স।



সাতদিনের সেরা