kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ আশ্বিন ১৪২৮। ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৩ সফর ১৪৪৩

গ্রেট ব্যারিয়ার রিফ বিপদাপন্ন?

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৪ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে অস্ট্রেলিয়ার গ্রেট ব্যারিয়ার রিফের দুই হাজার ৩০০ কিলোমিটার এলাকা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে জানিয়েছে ইউনেসকো। তাই এটিকে বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকা থেকে সরিয়ে ‘বিপদাপন্ন’ হিসেবে তালিকাভুক্ত করা হবে কি না, এ বিষয়ে গতকাল শুক্রবার সংস্থাটির আলোচনায় বসার কথা। বৈশ্বিক উষ্ণায়নের কারণে গ্রেট ব্যারিয়ার রিফের ক্ষতির পরিমাণ দ্রুতগতিতে বাড়ছে। এ অবস্থায় জাতিসংঘের বিশেষায়িত সংস্থা ইউনেসকো গত মাসে এক বৈঠকে বিশ্বের বৃহত্তম প্রবাল প্রাচীরকে বিপদাপন্ন হিসেবে তালিকাভুক্ত করা উচিত বলে জানায়। বিশ্বের অন্যতম এই প্রাকৃতিক সম্পদ রক্ষায় অস্ট্রেলিয়াকে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার আহ্বানও জানানো হয়। তবে সে সময় ইউনেসকোর এমন মন্তব্যের ‘তীব্র বিরোধিতা’ করে অস্ট্রেলিয়ার সরকার। এ ছাড়া গ্রেট ব্যারিয়ার রিফকে বিপদাপন্ন হিসেবে তালিকভুক্ত না করার জন্য শুরু হয় ক্যানবেরার তদবির। এর জেরে চলতি সপ্তাহে ইউনেসকোর ২১ সদস্য রাষ্ট্রের মধ্যে ১২ সদস্য সংস্থার গ্রেট ব্যারিয়ার রিফ সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত ২০২৩ সাল পর্যন্ত পেছানোর পরামর্শ দেয়। গ্রেট ব্যারিয়ার রিফ ১৯৮১ সাল থেকে বিশ্ব ঐতিহ্যবাহী স্থান হিসেবে তালিকাভুক্ত। ২০১৭ সাল থেকে ইউনেসকো এই প্রবাল প্রাচীরকে বিপদাপন্ন হিসেবে তালিকাভুক্তির কথা বলে আসছে। বিজ্ঞানীদের দাবি, বৈশ্বিক উষ্ণতা বৃদ্ধির কারণে সমুদ্রের উষ্ণতা বেড়ে যাওয়ায় প্রবাল প্রাচীরটির গুরুতর ক্ষতি হয়েছে। ইউনেসকোর সুপারিশ মেনে নেওয়া হলে জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত বিশ্ব ঐতিহ্যভুক্ত কোনো প্রাকৃতিক সম্পদ এই প্রথম বিপদাপন্ন হিসেবে তালিকাভুক্ত হবে। তবে গ্রিনহাউস গ্যাস নিঃসরণ কমিয়ে পানির তাপমাত্রা কমিয়ে আনার মাধ্যমে প্রবাল দ্বীপের ধ্বংস ঠেকানো সম্ভব বলে জানান বিজ্ঞানীরা। জাতিসংঘ জানায়, বৈশ্বিক উষ্ণায়ন আরো দেড় ডিগ্রি বাড়লে এই প্রবাল প্রাচীরের ৯০ শতাংশই মারা যাবে। জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে সাগরের পানির তাপমাত্রা বৃদ্ধি পেয়েছে। ফলে অস্ট্রেলিয়ার এই প্রবাল দ্বীপের রঙিন শৈবালগুলো মরে যাচ্ছে। উজ্জ্বলতা হারানো প্রবালগুলো পুরোপুরি আগের অবস্থায় ফিরে যেতে হলে এই পানির তাপমাত্রা কমাতে হবে। এতে সময় লাগবে ১০ থেকে ১৫ বছর। প্রাকৃতিক এ প্রবাল প্রাচীর ধ্বংসের সীমানায় রয়েছে বলে সতর্ক করেছেন বিজ্ঞানীরা। সূত্র : বিবিসি, এএফপি।



সাতদিনের সেরা