kalerkantho

সোমবার  । ১২ আশ্বিন ১৪২৮। ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৯ সফর ১৪৪৩

সংক্ষিপ্ত

আবারও প্রধানমন্ত্রী হলেন লফভেন

স্ক্যান্ডিনেভিয়া প্রতিনিধি   

৮ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মাত্র দুই সপ্তাহের ব্যবধানে সুইডিশ পার্লামেন্টে সরাসরি ভোটে আবারও প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হলেন স্টেফান লফভেন। গত ২১ জুন লফভেন ও তাঁর সরকারের বিরুদ্ধে পার্লামেন্টে সরাসরি ভোটাভুটির মাধ্যমে অনাস্থা প্রকাশ করা হয়। গণতান্ত্রিক দেশটির ইতিহাসে কোনো সরকার তথা প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে এভাবে অনাস্থা প্রকাশের ঘটনা এটাই ছিল প্রথম। ওই দিন পার্লামেন্টের মোট ৩৪৯ সংসদ সদস্যের মধ্যে সোশ্যাল ডেমোক্রেটিক দলের প্রধান এবং সুইডেনের প্রধানমন্ত্রী লফভেনের বিপক্ষে ভোট দেন ১৮১ জন, পক্ষে ভোট দেন ১০৯ জন, ভোট দেওয়া থেকে বিরত থাকেন ৫১ জন এবং অনুপস্থিত ছিলেন আটজন। এর আট দিন পর এক অনলাইন সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে লফভেন পদত্যাগের ঘোষণা দেন। একই সঙ্গে তিনি ৯০ দিনের মধ্যে পার্লামেন্টের উপনির্বাচনের বিষয়টি নাকচ করে দিয়ে সংবিধান অনুযায়ী সংসদের স্পিকারের ওপর পরবর্তী সরকার গঠনের প্রক্রিয়াটি ছেড়ে দেন। স্টেফান লফভেন তাঁর পদত্যাগের পক্ষে যুক্তি তুলে ধরে জানান, নিয়মানুযায়ী পার্লামেন্টের পরবর্তী জাতীয় নির্বাচন হবে ২০২২ সালের সেপ্টেম্বর মাসে। এরই মধ্যে আবারও তিন মাসের মধ্যে নির্বাচন করে সরকার গঠন করাও সময়সাপেক্ষ ব্যাপার। সুতরাং নতুন সরকার এলেও তাঁর সময়কাল বেশিদিনের জন্য হবে না। এ ছাড়া চলমান কভিড-১৯ পরিস্থিতির কারণে উপনির্বাচন বিঘ্নিত হলে দেশ সাংবিধানিক সংকটের মধ্যে পড়বে, যা দেশকে আরো ভয়াবহতার দিকে ঠেলে দিতে পারে। সে ক্ষেত্রে নতুন কোনো সরকার আসাই যুক্তিসংগত, যাঁরা পরবর্তী নির্বাচন পর্যন্ত দেশ পরিচালনা করবেন এবং দেশকে সাংবিধানিক সংকট থেকে রক্ষা করবেন। সুইডেনের সাংবিধানিক নিয়মানুযায়ী, সংসদের স্পিকার কোনো দল বা জোটকে তখন সরকার গঠন করতে অনুরোধ করবেন।



সাতদিনের সেরা