kalerkantho

শুক্রবার । ২ আশ্বিন ১৪২৮। ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১। ৯ সফর ১৪৪৩

জান্তাপ্রধানের জন্মদিনে প্রতীকী শবযাত্রা

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৪ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জান্তাপ্রধানের জন্মদিনে প্রতীকী শবযাত্রা

মিয়ানমারে জান্তাবিরোধী বিক্ষোভকারীরা গতকাল ইয়াঙ্গুনে সেনাবাহিনীর ইউনিফর্ম পোড়ায়। ছবি : এএফপি

মিয়ানমারে সামরিক জান্তা মিন অং হ্লাইংয়ের প্রতীকী শবযাত্রা করেছে গণতন্ত্রপন্থী বিক্ষোভকারীরা। গতকাল শনিবার জান্তাপ্রধানের জন্মদিনে এই প্রতীকী শেষকৃত্য করেছে গণতন্ত্রপন্থীরা। কুশপুত্তলিকা পোড়ানোর পাশাপাশি তাঁর ছবি ও কফিনে আগুন দিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে তারা। দেশের বিভিন্ন শহরের মানুষ এই প্রতিবাদে শামিল হয়।

গতকাল মিন অং হ্লাইংয়ের ৬৫ বছর পূর্ণ হলো। ২০০৮ সালে প্রণীত সংবিধান অনুসারে এখন তাঁর অবসরে থাকার কথা। কিন্তু অং সান সু চির নেতৃত্বাধীন ন্যাশনাল লীগ ফর ডেমোক্রেসি (এনএলডি) পরিচালিত সরকারকে হটিয়ে দিয়ে গত ১ ফেব্রুয়ারি তিনি ক্ষমতা দখল করেন। এরপর থেকে গণতন্ত্রপন্থীদের বিক্ষোভ দমন করতে গিয়ে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা ৮৯০ জন বেসামরিক নাগরিককে হত্যা করেন। গ্রেপ্তার হয়েছে সাড়ে ছয় হাজার মানুষ।

মিয়ানমারের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর মান্দালায় বিক্ষোভকারীরা গতকাল জান্তাপ্রধানের ছবি পোড়ায়। পরে তাঁর প্রতীকী কফিনে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। শেষকৃত্যে ‘মোহিঙ্গা’ নামের একটি ঐতিহ্যবাহী নুডলস স্যুপ খাওয়ার প্রচলন রয়েছে মিয়ানমারে। গতকাল বিক্ষোভকারীরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এই খাবার গ্রহণের ছবি পোস্ট করেন। ইয়াঙ্গুনের এক বাসিন্দা বলেন, ‘আমি তার জন্মদিনে মোহিঙ্গা তৈরি করেছি, কারণ আমি চাই সে শিগগিরই মরুক। তার কারণে অনেক মানুষ প্রাণ হারিয়েছে।’

২০১১ সালে মিয়ানমারের সামরিক বাহিনীর শীর্ষপদে আসীন হন জেনারেল হ্লাইং। রাখাইন প্রদেশে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে দেশছাড়া করা, মানবাধিকার লঙ্ঘন এবং ঘৃণা ছড়ানোর মতো বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে তাঁর বিরুদ্ধে। বিদ্বেষমূলক বক্তব্য দেওয়ার কারণে তিনি ফেসবুকে নিষিদ্ধ। রাখাইনে গণহত্যায় মদদ দেওয়ার অভিযোগে জাতিসংঘ প্রণীত দেশটির শীর্ষ জেনারেলদের তালিকায় তিনিও রয়েছেন। এ ছাড়া সাম্প্রতিক দমনপীড়নেও তিনি সারা বিশ্বে নিন্দিত।

যুক্তরাষ্ট্রের আরো নিষেধাজ্ঞা : জান্তার বিরুদ্ধে গত শুক্রবার আরো নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। মিয়ানমারের সামরিক বাহিনীর গুরুত্বপূর্ণ কর্মকর্তাদের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার পাশাপাশি চারটি কম্পানিকেও কালো তালিকাভুক্ত করেছে পশ্চিমা দেশটি। এসব কম্পানি থেকে মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী লাভবান হয়ে আসছে বলে অভিযোগ ওয়াশিংটনের। নতুন এই নিষেধাজ্ঞা দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশটির অভ্যুত্থানকারীদের ওপর চাপ বাড়াবে বলেও মনে করছে তারা। মিয়ানমারের সেনাবাহিনী ও এর কর্মকর্তাদের ওপর যুক্তরাষ্ট্র আগেও নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে। সূত্র : এনডিটিভি।



সাতদিনের সেরা