kalerkantho

শনিবার । ৯ শ্রাবণ ১৪২৮। ২৪ জুলাই ২০২১। ১৩ জিলহজ ১৪৪২

করোনা জয়ের প্রান্তে উত্তর মেরুর দেশগুলো!

স্ক্যান্ডিনেভিয়া প্রতিনিধি   

২৫ জুন, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ইউরোপের স্ক্যান্ডিনেভিয়াভুক্ত দেশগুলোর পরিসংখ্যান ও জরিপের সর্বশেষ ফলাফলে কভিড-১৯ পরিস্থিতি বিশ্বের অন্য দেশগুলোর তুলনায় বেশ আশাব্যঞ্জক। করোনাভাইরাসের সংক্রমণের কারণে বিভিন্ন সময়ে এসব দেশে যে নিষেধাজ্ঞা ও আইন প্রয়োগ করা হয়েছিল, তা এরই মধ্যে শিথিল করা শুরু হচ্ছে। আগামী শীত মৌসুম আসার আগেই দেশগুলো অনেকটা স্বাভাবিক জীবনে ফিরে যেতে পারবে বলে দেশগুলোর সরকার ঈঙ্গিত দিচ্ছে।

নরওয়ের দ্য ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব পাবলিক হেলথের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত এক সপ্তাহে দেশটিতে কভিড -১৯-এ একটিও মৃত্যু হয়নি। এ ছাড়া এ সময়ে করোনার উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালের আইসিইউতেও কোনো রোগী ভর্তি হয়নি। নরওয়ের স্বাস্থ্যমন্ত্রী বেন্ট হইয়ে জানান, গত আট মাসের মধ্যে এটিই প্রথম সপ্তাহ যেখানে দেশটি শূন্য মৃত্যু দেখেছে, যদিও কিছু কিছু সংক্রমণের খবর বিভিন্ন অঞ্চল থেকে পাওয়া যাচ্ছে।

ফিনল্যান্ডে ১২-১৫ বছর বয়সী শিশুদের কভিড-১৯ টিকা দেওয়ার জন্য সরকারকে পরামর্শ দিয়েছে দেশটির ইনস্টিটিউট ফর হেলথ অ্যান্ড ওয়েলফেয়ার (টিএইচএল)। এর আগে যারা স্বাস্থ্যগতভাবে ঝুঁকির মুখে ছিল শুধু তাদের ক্ষেত্রে এ সুপারিশ করা হয়েছিল।

সুইডেনে আইসিইউতে ভর্তি কভিড রোগীর সংখ্যা কমছে। গত সপ্তাহে আইসিইউতে রোগীর সংখ্যা এক শর নিচে নেমে আসে বলে জানান দেশটির আইসিইউ নিবন্ধকের দায়িত্বে থাকা জনি হিলগ্রেন। তবে ডেল্টা ভেরিয়েন্টের সংক্রমণের কারণে আইসিইউতে রোগীর সংখ্যা আবার বাড়তে পারে বলে জানান রাষ্ট্রের প্রধান মহামারিবিদ আন্ডেরস টেগনেল। এদিকে বিদেশ ভ্রমণের ওপর আবারও কড়াকড়ি আরোপ করেছে দেশটি।

ইইউভুক্ত দেশগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ হয়েছে ডেনমার্কে। গত সপ্তাহ থেকে মাস্ক পরার বিষয়টি শিথিল করা হয়েছে। এ ছাড়া আগামী ১ জুলাই থেকে ঘরোয়া পরিবেশে বা রেস্তোরাঁয় সর্বোচ্চ ২৫০ জনের সমাগমের অনুমতি দেওয়া হয়েছে দেশটিতে।