kalerkantho

শনিবার । ৯ শ্রাবণ ১৪২৮। ২৪ জুলাই ২০২১। ১৩ জিলহজ ১৪৪২

ডাব্লিউএইচও বলছে

গরিব দেশগুলো টিকাসংকটে

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৩ জুন, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



গরিব দেশগুলো টিকাসংকটে

কোভ্যাক্স বৈশ্বিক উদ্যোগের মাধ্যমে টিকাদান কর্মসূচি চালিয়ে যাওয়া বহু দরিদ্র দেশ প্রতিষেধকসংকটে পড়েছে বলে জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডাব্লিউএইচও)। জাতিসংঘের এই সংস্থার জ্যেষ্ঠ উপদেষ্টা ড. ব্রুস এলওয়ার্ড বলছেন, কোভ্যাক্স উদ্যোগে এরই মধ্যে ১৩১টি দেশকে ৯ কোটি ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে। কিন্তু দেশগুলোর চাহিদায় তা খুবই অপ্রতুল। অথচ ভাইরাসটি এখনো বিশ্বজুড়ে তাণ্ডব চালিয়ে যাচ্ছে।

সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় গত সোমবার ড. ব্রুস এলওয়ার্ড এও বলেছেন, আফ্রিকার কিছু দেশে যখন সংক্রমণের তৃতীয় ঢেউ শুরু হয়েছে, তখনই টিকার এই ঘাটতি দেখা দিয়েছে। কোভ্যাক্সের সঙ্গে যুক্ত ৮০টি নিম্ন আয়ের দেশের মধ্যে অন্তত অর্ধেক দেশে টিকাদান কর্মসূচি অব্যাহত রাখার মতো পর্যাপ্ত প্রতিষেধক নেই। তারা সংকটের কথা জানিয়েছে; তবে এ অবস্থায় পড়া দেশের সংখ্যা সম্ভবত আরো বেশি হবে।

গত সোমবার দক্ষিণ আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট সিরিল রামাফোসা ধনী দেশগুলোকে টিকা মজুদ বন্ধের আহ্বান জানিয়েছেন। দক্ষিণ আফ্রিকায় করোনাভাইরাস রোগীর সংখ্যা দ্রুত বাড়তে শুরু করেছে। রামাফোসার সরকার সংক্রমণের বিস্তার রোধ করার চেষ্টা করছে। মহাদেশের নিরিখে এখন পর্যন্ত আফ্রিকাজুড়ে মাত্র চার কোটি ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে। সেখানে টিকা পাওয়া লোক মোট জনসংখ্যার ২ শতাংশেরও কম। এ পরিস্থিতি কাটিয়ে উঠতে দক্ষিণ আফ্রিকায় আরো টিকা উত্পাদন করার জন্য একটি আঞ্চলিক কেন্দ্র গড়ে তুলতে কোভ্যাক্সের সঙ্গে রামাফোসার সরকার কাজ করছে বলে জানানো হয়েছে।

ভারতে প্রত্যন্ত এলাকায় টিকার বাহক ড্রোন : করোনা মোকাবেলায় ভারতের কর্ণাটকে প্রথমবারের মতো গত সোমবার ড্রোনের ব্যবহার শুরু হয়েছে। বলা হচ্ছে, টিকা, ওষুধ, চিকিত্সাসামগ্রী প্রত্যন্ত কিংবা দুর্গম এলাকায় পৌঁছে দিতে স্বাস্থ্যকর্মীদের কাছে বড় ভরসা হয়ে উঠবে এই ড্রোন। দীর্ঘ টানাপড়েনের পর ডিরেক্টরেট জেনারেল অব সিভিল এভিয়েশনের (ডিজিসিএ) তরফে এই ড্রোন ওড়ানোর ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে কর্ণাটকের ‘থ্রোটেল এরোস্পেস সিস্টেম’ নামের একটি কম্পানিকে। প্রতিষ্ঠানটির সহপ্রতিষ্ঠাতা সেবাস্তিয়ান অন্ত জানিয়েছেন, আপাতত দুটি ড্রোন ব্যবহার করা হচ্ছে। কলম্বিয়ায় মৃত এক লাখ ছাড়াল : কলম্বিয়ায় করোনাজনিত প্রাণহানির সংখ্যা এক লাখ ছাড়িয়েছে বলে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় নিশ্চিত করেছে। গত সোমবার ২৪ ঘণ্টায় ৬৪৮ জনের মৃত্যুসহ দেশটিতে এ পর্যন্ত মোট প্রাণহানির সংখ্যা দাঁড়িয়েছে এক লাখ ৫৮২।

ইতালিতে মাস্ক বাধ্যতামূলক নয় : ইউরোপে করোনায় সবচেয়ে বেশি পর্যুদস্ত দেশ ইতালিতে ঘরের বাইরে মাস্ক পরা আর বাধ্যতামূলক থাকছে না। আগামী ২৮ জুন থেকে এই সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে বলে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে। ইতালির বৈজ্ঞানিক পরামর্শ কমিটির সুপারিশে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এ ঘোষণা দিয়েছে। তবে বড় ধরনের সমাবেশে অংশ নিলে সে ক্ষেত্রে সঙ্গে অন্তত মাস্ক রাখার কথা বলা হয়েছে।

মাস্ক বাধ্যতামূলক না রাখার সিদ্ধান্তটি কার্যকর হবে ইতালির ‘হোয়াইট’ জোনে। সূত্র : বিবিসি, এএফপি।