kalerkantho

শনিবার । ১৬ শ্রাবণ ১৪২৮। ৩১ জুলাই ২০২১। ২০ জিলহজ ১৪৪২

১০০ কোটি ডোজের মাইলফলকে চীন

ব্রাজিলে মৃত্যু পাঁচ লাখ ছাড়াল

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২১ জুন, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



১০০ কোটি ডোজের মাইলফলকে চীন

করোনা মহামারি মোকাবেলায় চিকিৎসা অবকাঠামো ও সামাজিক পদক্ষেপ বাড়াতে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশগুলোকে আহবান জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডাব্লিউএইচও)। সংস্থাটির মতে, করোনার আরেকটি ঢেউ প্রতিহত করতে এসব খাতে অবশ্যই গুরুত্ব দিতে হবে।

ডাব্লিউএইচও বলেছে, মালদ্বীপ ও মিয়ানমার চলতি সপ্তাহেই নিশ্চিত করেছে যে দেশ দুটিতে করোনার নতুন ভেরিয়েন্ট আশঙ্কাজনক হারে ছড়িয়ে পড়ছে। এর আগে বাংলাদেশ, ভারত, ইন্দোনেশিয়া, নেপাল, শ্রীলঙ্কা, থাইল্যান্ড ও পূর্ব তিমুরে এসব ভেরিয়েন্ট ছড়িয়ে পড়ে।

দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় ডাব্লিউএইচওর আঞ্চলিক পরিচালক পুনম ক্ষেত্রপাল সিং বলেন, ‘করোনা মোকাবেলায় এসব দেশে স্বাস্থ্য খাতের অবকাঠামো আরো শক্তিশালী করতে হবে। বিশেষ করে প্রান্তিক পর্যায়ে নতুন নতুন অবকাঠামো নির্মাণ করতে হবে।’

এদিকে চীন গতকাল রবিবার ঘোষণা দিয়েছে যে তারা এরই মধ্যে ১০০ কোটি ডোজ টিকা প্রয়োগ করেছে। গত শুক্রবার পর্যন্ত পুরো বিশ্বে প্রয়োগ করা টিকার সংখ্যা ছিল আড়াই শ কোটি। এর দুই দিন পর এই ঘোষণা দিল চীন। তাদের হিসাবে, বিশ্বে যে পরিমাণ টিকা প্রয়োগ হয়েছে তার ৪০ শতাংশই চীনে।

চীন ১০ লাখ ডোজের মাইলফলক অর্জন করে গত ২৭ মার্চ। এর দুই সপ্তাহ আগেই এই মাইলফলকে পৌঁছায় যুক্তরাষ্ট্র। কিন্তু মে মাসে এসে টিকা প্রয়োগের গতি বাড়িয়ে দেয় চীন। সব মিলিয়ে শনিবার পর্যন্ত ১০১ কোটি ৪৮ লাখ ৯০ হাজার ডোজ টিকা প্রয়োগ করা হয়েছে। চীনের মোট জনসংখ্যা ১৪০ কোটির মতো।

ব্রাজিলে মৃত্যু পাঁচ লাখ ছাড়াল : মহামারিতে মৃত্যুর সংখ্যায় বিশ্বে দ্বিতীয় স্থানে থাকা ব্রাজিলে মৃত্যু পাঁচ লাখ ছাড়িয়েছে। মৃত্যু আরো অনেক বাড়ার আশঙ্কা জানিয়ে দেশটির স্বাস্থ্য নিয়ন্ত্রক সংস্থার সাবেক প্রধান গনজালো ভেচিনা বলেন, ‘আমার মনে হয় টিকার প্রভাব দেখার আগেই আমাদের মৃত্যুর সংখ্যা সাত বা আট লাখে পৌঁছে যাবে।’

টিকাদান কর্মসূচির ধীরগতি, করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ছড়াতে থাকা, শীত এগিয়ে আসতে থাকা, সামাজিক দূরত্ব বিধি ফের আরোপ করতে সরকারের অনীহা—এসব কারণে দেশটিতে সংক্রমণ পরিস্থিতি আরো খারাপ হতে পারে বলে সতর্ক করেছেন বিশেষজ্ঞরা।

গত শনিবার দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, ব্রাজিলে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা এক কোটি ৭৮ লাখ ৮৩ হাজার ৭৫০ জন আর এদের মধ্যে পাঁচ লাখ ৮০০ জনের মৃত্যু হয়েছে। গত সপ্তাহে দেশটিতে দৈনিক গড়ে দুই হাজার জন করে করোনা রোগীর মৃত্যু হয়েছে।

সার্বিক পরিস্থিতি : বৈশ্বিক পরিসংখ্যানভিত্তিক ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারের হিসাব অনুযায়ী, বিশ্বের ২২০টি দেশ ও অঞ্চলে শনাক্ত কভিড-১৯ রোগীর সংখ্যা ১৭ কোটি ৯০ লাখের বেশি। মৃতের সংখ্যা সাড়ে ৩৮ লাখ ৭৮ হাজারের কাছাকাছি। সেরে ওঠার সংখ্যাও কম নয়, সাড়ে ১৬ কোটির মতো। চিকিৎসাধীন আছে প্রায় এক কোাটি ১৫ লাখ ৯৮ হাজার মানুষ। তাদের মধ্যে মৃদু উপসর্গ রয়েছে প্রায় এক কোটি ১৫ লাখ ১৬ হাজার জনের (৯৯.৩ শতাংশ)। বাকিদের (০.৭ শতাংশ) অবস্থা আশঙ্কাজনক। বিশ্বে প্রতি ১০ লাখ মানুষের মধ্যে করোনায় আক্রান্ত হয়েছে ২২ হাজার ৯৬৮ জন। আক্রান্তের তুলনায় মৃত্যুর হার ২ শতাংশ।

সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া, এএফপি, রয়টার্স।