kalerkantho

শুক্রবার । ৮ শ্রাবণ ১৪২৮। ২৩ জুলাই ২০২১। ১২ জিলহজ ১৪৪২

ভারতের করোনা পরিস্থিতি

সংক্রমণের তৃতীয় ঢেউ দেড়-দুই মাসের মধ্যে

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২০ জুন, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



সংক্রমণের তৃতীয় ঢেউ দেড়-দুই মাসের মধ্যে

আগামী ছয় থেকে আট সপ্তাহের মধ্যে ভারতে করোনার তৃতীয় ঢেউ আছড়ে পড়তে পারে। গতকাল শনিবার এমন আশঙ্কার কথা জানিয়েছেন দিল্লির ‘অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অব মেডিক্যাল সায়েন্সেস’-এর (এইমস) পরিচালক রণদীপ গুলেরিয়া। তাঁর কথায়, ‘করোনা সংক্রমণের তৃতীয় ঢেউয়ের আঘাত অনিবার্য। এই পরিস্থিতিতে বিশাল জনসংখ্যার এই দেশে টিকাদান কর্মসূচি সম্পন্ন করাই বড় চ্যালেঞ্জ।’

সম্প্রতি প্রতিবেশী দেশটিতে করোনা পরিস্থিতির বেশ উন্নতি হওয়ায় বিভিন্ন রাজ্যে বিধি-নিষেধ শিথিল করা হয়েছে। এ প্রসঙ্গে এইমস প্রধান বলেন, ‘দ্বিতীয় ঢেউয়ের উদাহরণ থেকে আমাদের শিক্ষা নিতে হবে। তৃতীয় ঢেউ আসার আগে সংক্রমণের হটস্পটগুলো চিহ্নিত করে কভিড পরীক্ষা ও চিকিৎসাসংক্রান্ত পরিকাঠামো গড়ে তুলতে হবে।’

‘টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিয়ে অনিশ্চয়তায় ৪০ দেশ’

বিশ্বের ৩০ থেকে ৪০টি দেশ তাদের নাগরিকদের জন্য করোনাভাইরাসের টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিশ্চিত করতে পারছে না। বিশেষ করে যেসব নাগরিকদের অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছিল তারাই অনিশ্চয়তার মধ্যে রয়েছে বলে জানিয়েছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মহাপরিচালকের শীর্ষ উপদেষ্টা ব্রুস এলওয়ার্ড। ওই কর্মকর্তা জানান, বিশ্বের বহু দেশে টিকা সংকট দেখা দিয়েছে। দ্বিতীয় ডোজ পাওয়া নিয়ে শুরু হয়েছে অনিশ্চয়তা। এ ছাড়া যেসব দেশ ভারতের সিরাম ইনস্টিটিউটের টিকার ওপর নির্ভরশীল তাদের টিকা পাওয়ায় অনিশ্চয়তা বেড়েছে বহুগুণ। কারণ ভারতে ডেল্টা ধরন শনাক্তের পর নাজুক হয়ে পড়েছে দেশটি। সে কারণে ভারত টিকা রপ্তানি বন্ধ করে দিয়েছে।

দুশ্চিন্তা বাড়াচ্ছে পেরুর ল্যাম্বডা ধরন

করোনাভাইরাসের নতুন একটি ধরনের উপস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডাব্লিউএইচও)। এটির নাম রাখা হয়েছে ‘ল্যাম্বডা’। গত বছরের আগস্টে পেরুতে প্রথম চিহ্নিত হয় এটি। তার পর থেকে অন্তত ২৯টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে এই ধরন।

ডাব্লিউএইচও একে জায়গা দিয়েছে ‘ভেরিয়েন্ট অব ইনটেরেস্ট’ তালিকায়। তাদের বক্তব্য, ল্যাম্বডা স্ট্রেনকে এই মুহূর্তে পর্যবেক্ষণে রাখা জরুরি। শিগগিরই হয়তো আলফা, বিটা, ডেল্টা, গামার মতো একেও জায়গা দিতে হবে ‘ভেরিয়েন্ট অব কনসার্ন’ তালিকায়। ডাব্লিউএইচওর সাপ্তাহিক বুলেটিনে বলা হয়েছে, ‘দক্ষিণ আমেরিকাজুড়ে ল্যাম্বডা ধরনের ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়া দেখেই একে ‘ ‘ভেরিয়েন্ট অব ইনটেরেস্ট’ ঘোষণা করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।’

ডাব্লিউএইচও জানিয়েছে, ল্যাম্বডা ধরনটিকে তারা দীর্ঘ সময় ধরে পর্যবেক্ষণ করে দেখেছে, এটির সংক্রমণ ক্ষমতা ক্রমেই বেড়েছে। অ্যান্টিবডির ক্ষমতাও নষ্ট করে দিচ্ছে এটি।

১৪ দেশের ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা তুলল ইউরোপ

যুক্তরাষ্ট্রসহ ১৪ দেশের ওপর থেকে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন। প্রায় এক বছর পর এই নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হলো। অপ্রয়োজনীয় ভ্রমণের ক্ষেত্রে যুক্তরাষ্ট্রসহ বেশ কিছু দেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা ছিল। নিষেধাজ্ঞার আওতায় থাকা অন্য দেশগুলো হলো আলবেনিয়া, অস্ট্রেলিয়া, ইসরায়েল, জাপান, লেবানন, নিউজিল্যান্ড, মেসিডোনিয়া, রুয়ান্ডা, সিঙ্গাপুর, সার্বিয়া, দক্ষিণ কোরিয়া, থাইল্যান্ড ও চীন।

ইউরোপীয় ইউনিয়ন এক বিবৃতিতে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। এর আগে গত ৩০ জুন ঘোষণা করা হয়েছিল, অপ্রয়োজনীয় ভ্রমণে যেসব দেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা আনা হয়েছে ধীরে ধীরে তা তুলে নেওয়া হবে।

মস্কোতে সংক্রমণে উল্লম্ফন

রাশিয়ার রাজধানী মস্কোতে করোনা সংক্রমণে উল্লম্ফন দেখা দিয়েছে। শনিবার সেখানে ৯ হাজার ১২০ জনের শরীরে করোনা ধরা পড়েছে, যেখানে আগের দিন এই সংখ্যা ছিল ৯ হাজার ৫৬। স্থানীয় কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, সপ্তাহ দুয়েক আগেও মস্কোতে শনাক্ত সংখ্যা তিন হাজারের নিচে ছিল। মূলত করোনার ভারতীয় ধরন বা ডেল্টা ধরনের প্রকোপে এই পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে।

সূত্র : আনন্দবাজার, রয়টার্স, এএফপি।



সাতদিনের সেরা