kalerkantho

সোমবার । ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮। ১৪ জুন ২০২১। ২ জিলকদ ১৪৪২

সংক্ষিপ্ত

‘প্রকৃতির বিস্ময়’ ফাগ্রাদালসফিয়াক

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৭ মে, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পৃথিবী কখনোই স্থির থাকে না, হোক সেটা মহামারির মতো গুরুতর সময় কিংবা অন্য কোনো সময়। এক বছরের বেশি সময় ধরে মানুষ মহামারির সঙ্গে যুদ্ধ করে গেলেও পৃথিবী চলছে তার আপন গতিতে। এর সবচেয়ে বড় উদাহরণ আইসল্যান্ড। এখানে জেগে উঠেছে এমন এক আগ্নেয়গিরি, যা ছয় হাজার বছরে ধরে ‘ঘুমিয়ে ছিল’। গত ১৯ মার্চ আইসল্যান্ডের সুপ্ত আগ্নেয়গিরি ফাগ্রাদালসফিয়াক থেকে অগ্ন্যুৎপাত শুরু হয়। আইসল্যান্ডের রাজধানী রিকজাভিকের যেকোনো জায়গা থেকেই আগ্নেয়গিরিটি দেখা যায়। আগ্নেয়গিরিটি শহর থেকে মাত্র ৩২ কিলোমিটার দূরে। গত ৮০০ বছরে রিকজান উপদ্বীপের কোনো আগ্নেয়গিরি থেকে অগ্ন্যুৎপাতের ঘটনা এটাই প্রথম। আগুন বইয়ে দেওয়া ফাগ্রাদালসফিয়াক যেন পৃথিবীর নিজস্ব আর একদম অকৃত্রিম সৌন্দর্যের আধার। যারা এটি স্বচক্ষে দেখেছেন, তাঁদের উচ্ছ্বাস পৃথিবীতে আর অন্য কিছুতে মিলবে না, এমন মন্তব্য করেছেন সংবাদ সংস্থা অ্যাসোসিয়েটেড প্রেসের (এপি) আলোকচিত্রী মিউগেল অ্যাঞ্জেল মরনাত্তি। ফাগ্রাদালসফিয়াকে অগ্ন্যুৎপাতের খবর শুনেই সেদিকে রওনা দিয়েছিলেন তিনি। তাঁর ভাষ্য, ‘আমার মতো একজন আলোকচিত্রীর জন্য আইসল্যান্ড হলো স্বর্গ।’ তবে আইসল্যান্ডের পাহাড়ে চড়া সবার জন্য নয়, সেটা বলতে ভোলেননি তিনি। ওই পাহাড়ের চূড়ায় উঠতে দুই-তিন ঘণ্টা লেগে যায়। কিন্তু মরনাত্তির জন্য এটি ছিল এক অনবদ্য অভিজ্ঞতা। তাঁর ভাষায় এ আগ্নেয়গিরি হলো ‘প্রকৃতির এক বিস্ময়’। এর কিছু মুহূর্ত শুধু তিনি তাঁর ক্যামেরায় ধারণ করতে পেরেছেন। সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া।