kalerkantho

সোমবার । ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮। ১৪ জুন ২০২১। ২ জিলকদ ১৪৪২

মিয়ানমারে জান্তাবিরোধী ছয় যোদ্ধা নিহত

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৭ মে, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মিয়ানমারে নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে কয়েক দিনের সংঘর্ষে জান্তাবিরোধী ছয় যোদ্ধা নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছে অন্তত ১০ জন। দেশটির পশ্চিমাঞ্চলীয় চীন প্রদেশের মিনদাত শহরে উভয় পক্ষের মধ্যে এই লড়াই চলছে। এদিকে মিয়ানমারে সহিংসতা বন্ধ করে আবারও শান্তি ও ঐক্য প্রতিষ্ঠার ডাক দিয়েছেন পোপ ফ্রান্সিস।

মিয়ানমারে গত ১ ফেব্রুয়ারি সামরিক অভ্যুত্থান ঘটে। এর পর থেকেই জান্তা সরকারের পতন ঘটাতে বিক্ষোভ চলছে দেশটির রাজপথে। বিক্ষোভ দমাতে গুলি ছুড়তেও পিছপা হচ্ছে না জান্তা সরকার। স্থানীয় পর্যবেক্ষক সংস্থা ‘অ্যাসিস্ট্যান্স অ্যাসোসিয়েশন ফর পলিটিক্যাল প্রিজনার্স’ (এএপিপি) জানিয়েছে, গত আড়াই মাসে নিরাপত্তা বাহিনীর হাতে অন্তত ৭৯০ বিক্ষোভকারী নিহত হয়েছে। গ্রেপ্তার করা হয়েছে অন্তত সাড়ে তিন হাজার ব্যক্তিকে।

নিরাপত্তা বাহিনীর দমন-পীড়নের হাত থেকে রক্ষা পেতে দেশি অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে বিশেষ বাহিনী গঠন করা হয়েছে বিভিন্ন শহরে। মিনদাত শহরে গঠন করা এ ধরনের একটি সংগঠনের নাম ‘চিনল্যাল্ড ডিফেন্স ফোর্স’ (সিডিএফ)। এই সংগঠনটির সঙ্গে ছয় দিন ধরে নিরাপত্তা বাহিনীর লড়াই চলছে।

গতকাল সিডিএফ এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘আমাদের ছয় সদস্য, যাঁরা স্থানীয় জনগণের নিরাপত্তা রক্ষার চেষ্টা করছিলেন, তাঁরা নিজেদের জীবন উৎসর্গ করেছেন।’

সংগঠনটির এক মুখপাত্র জানান, নিরাপত্তা বাহিনীর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে তাঁদের ১০ সদস্য আহত হয়েছে। এ ছাড়া সামরিক বাহিনীর সদস্যরা স্থানীয় পাঁচ বাসিন্দাকে ধরে নিয়ে গেছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই মুখপাত্র আরো জানান, সিডিএফ যোদ্ধারা সামরিক বাহিনীর বেশ কয়েকটি ট্রাক পুড়িয়ে দিয়েছে। তবে সিডিএফ যোদ্ধারা গতকাল পিছু হটে একটি জঙ্গলে ফিরে গেছে বলেও জানান ওই মুখপাত্র। তিনি বলেন, ‘আমরা আর শহরে অবস্থান করব না। কিন্তু ফের হামলা চালাতে আমরা শিগগিরই ফিরে আসব। আমাদের কাছে অস্ত্র বলতে হাতে তৈরি কিছু বন্দুক আছে। লড়াইয়ের জন্য এই অস্ত্র যথেষ্ট নয়।’

এদিকে মিনদাতে সহিংসতা বন্ধে জান্তা সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য। ব্রিটিশ দূতাবাস এক টুইট বার্তায় বলেছে, ‘বেসামরিক লোকজনের ওপর হামলা বেআইনি এবং কোনোভাবেই তা মেনে নেওয়া যায় না। মিনদাতের নৃশংসতার নথি-প্রমাণ জাতিসংঘের তদন্ত কমিটির হাতে পৌঁছে দেওয়া উচিত, যাতে করে জড়িতদের জবাবদিহির আওতায় আনা যায়।’ সূত্র : এএফপি।