kalerkantho

রবিবার । ৬ আষাঢ় ১৪২৮। ২০ জুন ২০২১। ৮ জিলকদ ১৪৪২

দিনে চার হাজারের বেশি মৃত্যু ভারতে

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৯ মে, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



দিনে চার হাজারের বেশি মৃত্যু ভারতে

ভারতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এক দিনে মৃতের সংখ্যা এই প্রথমবারের মতো চার হাজার পেরিয়েছে। গতকাল শনিবারের সরকারি তথ্য মতে, এই মৃত্যুর পাশাপাশি সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় ফের চার লাখের বেশি করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে এক সপ্তাহে চতুর্থবার দেশটিতে দৈনিক শনাক্ত চার লাখ ছাড়াল।

নতুন চার লাখ এক হাজার নিয়ে ভারতে মোট করোনা শনাক্তের সংখ্যা হলো দুই কোটি ১৮ লাখ। আর সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় চার হাজার ১৮৭ মৃত্যু নিয়ে ভারতে প্রাণহানির সংখ্যা দাঁড়াল দুই লাখ ৩৮ হাজার ২৭০ জনে।

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে জেরবার ভারতে পরবর্তী ঢেউ এলে শিশুরাই সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে বলে ধারণা করছেন মহারাষ্ট্রের স্বাস্থ্যমন্ত্রী রাজেশ তোপে। ভারতের এ রাজ্যেই করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যু সবচেয়ে বেশি। পশ্চিমাঞ্চলীয় রাজ্যটি এখন শিশুদের জন্য করোনা চিকিত্সাকেন্দ্র বানানোর প্রস্তুতি নিচ্ছে।

সংক্রমণের ধারাবাহিকতা ভাঙতে গত কয়েক দিনে ভারতের অনেক রাজ্যে লকডাউন, কারফিউর মতো বিধি-নিষেধ দেওয়া হচ্ছে। তামিলনাড়ু, কর্ণাটক ও মণিপুরও এখন এই তালিকায় যুক্ত হয়েছে।

কর্ণাটকে আগামীকাল সোমবার থেকে ২৪ মে পর্যন্ত লকডাউন দেওয়া হয়েছে। দুই সপ্তাহের লকডাউন দিয়েছে তামিলনাড়ুও। মণিপুরে কারফিউ দেওয়া হয়েছে ১৭ মে পর্যন্ত।

ভারতে মার্চের প্রথম দিকেও দিনে ২০ হাজারের কম নতুন করোনা রোগী পাওয়া যাচ্ছিল। অথচ দ্বিতীয় ঢেউয়ের কবলে পড়ে এপ্রিল মাসেই দেশটিতে প্রায় ৬৬ লাখ মানুষের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এদিকে ভারত জানুয়ারি থেকে দেশজুড়ে টিকাদান কর্মসূচি শুরু করলেও এখন পর্যন্ত মাত্র ১৬ কোটি ৭০ লাখ ডোজ দিতে পেরেছে। গত শুক্রবার দেশটিতে ২৩ লাখ ডোজেরও কম টিকা দেওয়া হয়েছে। ভারতের অনেক রাজ্যে ভ্যাকসিনের ঘাটতির কথাও জানিয়েছে স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলো।

ব্রিটেনের অক্সিজেন প্লান্ট ভারতে : করোনা মহামারিতে বিপর্যস্ত ভারতের জনগণের জন্য বিশ্বের সবচেয়ে বড় কার্গো বিমানে করে ১৮ টন ওজনের তিনটি অক্সিজেন জেনারেটর পাঠিয়েছে ব্রিটেন। এগুলোর সঙ্গে এক হাজার ভেন্টিলেটর নিয়ে গত শুক্রবার উত্তর আয়ারল্যান্ডের বেলফাস্ট থেকে কার্গো ফ্লাইটটি ভারতের উদ্দেশে উড়াল দেয়।

আজ রবিবার ভারতের স্থানীয় সময় সকাল ৮টায় বিমানটির অবতরণের কথা রয়েছে এবং ইন্ডিয়ান রেড ক্রস এসব সরঞ্জাম হাসপাতালে পৌঁছে দিতে সহায়তা করবে বলে জানিয়েছে।

১৮ টন ওজনের প্রতিটি অক্সিজেন উত্পাদন ইউনিট প্রতি মিনিটে ৫০০ লিটার অক্সিজেন উত্পাদনে সক্ষম, যা একসঙ্গে ৫০ জন মানুষের ব্যবহারের জন্য পর্যাপ্ত।

ব্রিটেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডমিনিক রাব বলেন, ‘উত্তর আয়ারল্যান্ডে থাকা অতিরিক্ত অক্সিজেন উত্পাদন ইউনিটগুলো সেখান থেকে ভারতে পাঠানো হচ্ছে। প্রাণ রক্ষাকারী এসব সরঞ্জাম ভারতের হাসপাতালগুলোয় সংকটাপন্ন রোগীদের কাজে আসবে বলে আশা করছি আমরা।’

সূত্র : এএফপি, বিবিসি।