kalerkantho

রবিবার । ২৬ বৈশাখ ১৪২৮। ৯ মে ২০২১। ২৬ রমজান ১৪৪২

নবনির্বাচিত বিধায়কদের মমতা

আপনারা যোগ্য জবাব দিয়েছেন

♦ ৫ মে শপথ নেবেন মমতা।
♦ ৬ ও ৭ মে শপথ নেবেন নবনির্বাচিত বিধায়করা

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৪ মে, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



আপনারা যোগ্য জবাব দিয়েছেন

কঠিন লড়াইয়ে জয় ছিনিয়ে এনে যোগ্য জবাব দিয়েছেন বিধায়করা, নবনির্বাচিতদের সঙ্গে বৈঠকে এই বার্তাই দিলেন পশ্চিমবঙ্গের বিদায়ি মুখ্যমন্ত্রী ও তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পাশাপাশি তাঁদের সাবধানীও হওয়ার বার্তাও দিলেন তিনি। বিধায়কদের মনে করিয়ে দিলেন, ‘বিধায়ক হয়ে গেছি বলে অহংকার করলে চলবে না। জিতেছেন মানে, দায়িত্ব বেড়েছে।’ তৃণমূলের জয়ের পর দেশের একাধিক বিজেপিবিরোধী দলের নেতৃত্ব মমতাকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। সেই কথা স্মরণ করে মমতা বলেছেন, ‘আমাদের জয়ে সারা দেশের মানুষ খুশি হয়েছে। দেশের সব বিরোধীরা খুশি হয়ে অভিনন্দন জানিয়েছে।’

রবিবারে তৃতীয়বারের জন্য পশ্চিমবঙ্গে সরকার গঠনের বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার পর গতকাল সোমবারই জয়ী বিধায়কদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন মমতা। সেখানে ঠিক হয়েছে, বিধানসভার স্পিকারের চেয়ারে আবারও বসতে চলেছেন বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়। স্পিকার নির্বাচনের দিন প্রোটেম স্পিকারের দায়িত্ব পালন করবেন সুব্রত মুখোপাধ্যায়। পরিষদীয় দলের নেতা হিসেবে মমতার নাম ঠিক হওয়ার পাশাপাশি সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, দলনেত্রী ঠিক করবেন, কে কোন দপ্তরের দায়িত্ব সামলাবেন। গতকালের বৈঠকের পর এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। পাশাপাশি, বৈঠকে ঠিক হয়েছে, ৫ মে শপথ নেবেন মমতা। ৬ ও ৭ মে শপথ নেবেন নবনির্বাচিত বিধায়করা।

এদিকে তৃণমূল কংগ্রেসের একটি সূত্র জানিয়েছে, মমতার নতুন মন্ত্রিসভায় পুরনোদের অনেকেই বাদ পড়তে পারেন। সেখানে স্থান হতে পারে বয়সে নবীনদের। গতকাল বিজয়ী বিধায়কদের সঙ্গে বৈঠক শেষেই মমতার রাজভবনে রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করতে যাওয়ার কথা। সেখানেই মমতা প্রস্তাব দেবেন নতুন সরকার গঠনের। মমতা করোনার কারণে এবার আর শপথগ্রহণ অনুষ্ঠান বৃহৎ পরিসরে করতে চাইছেন না। শপথগ্রহণ অনুষ্ঠান করতে চাইছেন রাজভবনেই।

ভোট কর্মকর্তার ‘প্রাণ সংশয়’ বার্তা দেখালেন মমতা : মমতা যেই নন্দীগ্রাম আসন থেকে ভোটে লড়ে হেরেছেন সেই নন্দীগ্রাম নিয়ে বিতর্ক শেষ হওয়ার লক্ষণ নেই। সেখানে গণনায় কারচুপি হয়েছে বলে রবিবার থেকেই অভিযোগ করে আসছে তৃণমূল কংগ্রেস। এবার মমতা নিজে জানালেন, ‘প্রাণনাশের হুমকি রয়েছে বলে পুনর্গণনার নির্দেশ দিতে ভয় পাচ্ছেন নন্দীগ্রামের রিটার্নিং অফিসার।’ গতকাল কালীঘাটে এক সংবাদ সম্মেলন করেন তৃণমূল নেত্রী। সেখানে রিটার্নিং অফিসারের সঙ্গে অজ্ঞাতপরিচয় এক ব্যক্তির মেসেজ কথোপকথন তুলে ধরেন তিনি। মমতা বলেন, ‘একজনের কাছ থেকে এসএমএস পেয়েছি। নন্দীগ্রামের এক রিটার্নিং অফিসার জানিয়েছেন, বন্দুকের নলের মুখে কাজ করতে হচ্ছে। তিনি যদি পুনর্গণনার নির্দেশ দেন, তাহলে তাঁর প্রাণ সংশয় হতে পারে। নন্দীগ্রামে মেশিন পাল্টে দেওয়া হয়েছে।’ সূত্র : পিটিআই, আনন্দবাজার পত্রিকা।



সাতদিনের সেরা