kalerkantho

বুধবার । ২৯ বৈশাখ ১৪২৮। ১২ মে ২০২১। ২৯ রমজান ১৪৪২

অনাহারের মুখে মিয়ানমারের ৩৪ লাখ মানুষ

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৩ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মিয়ানমারে সামরিক অভ্যুত্থানের কারণে তীব্র খাদ্যসংকটে পড়তে যাচ্ছে দেশটি। রাজনৈতিক পরিস্থিতির চরম অবনতি ও বাড়তে থাকা আর্থিক সংকটের মধ্যে সামনের মাসগুলোয় দেশটির অন্তত ৩৪ লাখ নাগরিক খাদ্য নিরাপত্তাহীনতার মুখে পড়তে যাচ্ছে। গতকাল বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে এমন আশঙ্কা প্রকাশ করেছে জাতিসংঘ।

জাতিসংঘের সংস্থা বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচির (ডাব্লিউএফপি) একটি গবেষণায় দেখা গেছে, মিয়ানমারের শহরাঞ্চলগুলোয় উৎপাদন, নির্মাণ ও পরিষেবা খাতে অনেক মানুষ চাকরি হারানোয় খারাপ পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। এর ওপর বাড়ছে খাবারের দাম। ফলে আগামী তিন থেকে ছয় মাসের মধ্যে খাদ্য জোগাড় করতে কঠিন পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হবে তাদের।

সংস্থাটি জানায়, মিয়ানমারে ফেব্রুয়ারির শেষ দিক থেকে চালের দাম ৫ শতাংশ ও ভোজ্য তেলের দাম ১৮ শতাংশ বেড়েছে। সংকটের মুখে বাণিজ্যিক রাজধানী ইয়াঙ্গুনে বসবাসকারী পরিবারগুলো কম খাবার খাচ্ছে এবং খাবার কিনতে গিয়ে ঋণগ্রস্ত হয়ে পড়ছে।

দেশটিতে ডাব্লিউএফপি তাদের কার্যক্রম তিন গুণ বাড়ানোর পরিকল্পনা করছে, যাতে দেশটির ৩৩ লাখ মানুষকে সহায়তা করা যায়। এ জন্য তারা বিভিন্ন দাতব্য সংস্থার কাছে ১০ কোটি ৬০ লাখ ডলার অর্থ সহায়তার আবেদন জানিয়েছে।

মিয়ানমারে ডাব্লিউএফপির কান্ট্রি ডিরেক্টর স্টিফেন অ্যান্ডারসন বলেন, ‘অনেক মানুষ তাদের চাকরি হারিয়েছে। খাবার কেনার সামর্থ্য তাদের নেই। খাদ্য নিরাপত্তার উদ্বেগজনক অবনতি ঠেকাতে হবে এবং এ সংকট নিরসনে এখনই সমন্বিত উদ্যোগ নিতে হবে।’

এদিকে গতকাল থাইল্যান্ডের এক জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা জানান, মিয়ানমারের অভ্যুত্থান সংকটের মধ্যে আগামীকাল শনিবার অনুষ্ঠেয় অ্যাসোসিয়েশন অব সাউথ-ইস্ট এশিয়ান নেশনসের (আসিয়ান) সম্মেলনে সংস্থাটির বিশ্বাসযোগ্যতা ও ঐক্যের এক পরীক্ষা হতে যাচ্ছে। এদিন ইন্দোনেশিয়ার রাজধানী জাকার্তায় আসিয়ানের সদস্যভুক্ত ১০ দেশের নেতা ও পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের মিয়ানমারের সংকট নিয়ে আলোচনায় বসার কথা। মিয়ানমারের সর্বোচ্চ সামরিক নেতা মিন অং হ্লাইংও সম্মেলনে যোগ দিচ্ছেন। অভ্যুত্থানের পর এটাই তাঁর প্রথম বিদেশ সফর।

সূত্র : এএফপি।



সাতদিনের সেরা