kalerkantho

সোমবার । ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮। ১৭ মে ২০২১। ০৪ শাওয়াল ১৪৪

টিএলপির হাত থেকে মুক্তি পেলেন ১১ পুলিশ সদস্য

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২০ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অবশেষে ১১ জন পাকিস্তানি পুলিশ কর্মকর্তা মুক্তি পেয়েছেন। গতকাল সোমবার পাকিস্তান পুলিশ কর্তৃপক্ষ এই মুক্তির তথ্য নিশ্চিত করেছে। পাকিস্তানে অবস্থানকারী ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূতকে বরখাস্ত করার দাবিতে ওই ১১ পুলিশ কর্মকর্তাকে অপরহণ করে তেহরিক-ই-লাব্বাইক পাকিস্তানের (টিএলপি) সমর্থকরা।

লাহোরে টিএলপি সমর্থক ও পুলিশের সংঘর্ষ চলাকালে ওই পুলিশ কর্মকর্তাদের জিম্মি হিসেবে আটক করে রাখা হয়। সম্প্রতি একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। সেখানে দেখা যায়, কয়েকজন পুলিশ কর্মকর্তার মাথায় ব্যান্ডেজ বাঁধা এবং তাঁদের শরীর রক্তাক্ত ও ক্ষতবিক্ষত। এই ভিডিওর সত্যতা নিশ্চিত করেছে পুলিশ কর্তৃপক্ষ।

পাকিস্তানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ রশিদ আহমেদ গতকাল বলেন, টিএলপির সঙ্গে বৈঠক করে পুলিশ কর্মকর্তাদের মুক্তি নিশ্চিত করা গেছে। তবে এর এক সপ্তাহ আগে পাকিস্তান সরকার টিএলপিকে সন্ত্রাসীগোষ্ঠী ঘোষণা করে। রশিদ টুইটারে এক ভিডিও বার্তায় বলেন, টিএলপির সঙ্গে সমঝোতার চেষ্টা শুরু হয়েছে এবং সমঝোতার প্রথম ধাপ সম্পন্ন হয়েছে।

লাহোর পুলিশ জানিয়েছে, এই ১১ কর্মকর্তার মধ্যে আধাসামরিক বাহিনীর কয়েকজন সেনাও আছেন। ওই কর্মকর্তাদের লাহোরের একটি মসজিদে আটকে রাখা হয়েছিল। মসজিদটি টিএলপি বাহিনীর আশ্রয়কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহৃত হয়। মসজিদটি এখন তাদের সমর্থকদের দ্বারা পূর্ণ এবং বাইরে থেকে পুলিশ বাহিনী মসজিদটি ঘিরে রয়েছে।

ফ্রান্সের একটি ম্যাগাজিনে মহানবী (সা.)-কে ব্যঙ্গ করে একটি কার্টুন প্রকাশের পর দেশটির প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাখোঁর এক মন্তব্যের প্রতিবাদে টিএলপি পাকিস্তানে আন্দোলন শুরু করে। তারা ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূতের পদত্যাগ দাবি করে। আন্দোলনকারীদের সহিংসতায় বিভিন্ন জায়গায় ছয়জন পুলিশ সদস্য নিহত হন। টিএলপিও দাবি করেছে, সংঘর্ষে তাদের কয়েকজন সমর্থক নিহত হয়েছে। সূত্র : এএফপি।