kalerkantho

মঙ্গলবার । ৩০ চৈত্র ১৪২৭। ১৩ এপ্রিল ২০২১। ২৯ শাবান ১৪৪২

‘অসহযোগ আন্দোলন’ তীব্র হচ্ছে মিয়ানমারে

নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে আরো দুজন নিহত

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৯ মার্চ, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



‘অসহযোগ আন্দোলন’ তীব্র হচ্ছে মিয়ানমারে

ইয়াঙ্গুনে গতকাল নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষের সময় জান্তাবিরোধীদের আত্মরক্ষার চেষ্টা। ছবি : এএফপি

মিয়ানমারে জান্তা সরকারবিরোধী বিক্ষোভে নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে আরো দুজন নিহত হয়েছে। এ নিয়ে গত এক মাসে অর্ধশতাধিক বিক্ষোভকারীর মৃত্যু হলো। তবে মৃত্যুঝুঁকি উপেক্ষা করে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের দাবিতে প্রতিদিনই রাজপথে জড়ো হচ্ছে হাজারো মানুষ।

এদিকে ‘অসহযোগ আন্দোলনের’ অংশ হিসেবে গতকাল ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে ব্যবসায়ীদের বেশ কয়েকটি সংগঠন।

গত নভেম্বরের নির্বাচন নিয়ে অং সান সু চির নেতৃত্বাধীন সরকারের সঙ্গে সেনাবাহিনীর টানাপড়েন চলছিল। এর মধ্যে ১ ফেব্রুয়ারি দেশটিতে সামরিক অভ্যুত্থান ঘটে। বিক্ষোভকারীদের দমাতে ধরপাকড় কিংবা ইন্টারনেট বন্ধ করা থেকে শুরু করে গুলি চালানোর মতো কঠোর পদক্ষেপ নিচ্ছে জান্তা সরকার।

সামরিক বাহিনীকে বেকায়দায় ফেলতে ‘অসহযোগ’ আন্দোলনের ডাক দিয়েছেন সরকারি চাকরিজীবীরা। ‘সিভিল ডিস-ওবিডিয়েন্স মুভমেন্ট’ শীর্ষক আন্দোলনে অনেক সরকারি প্রতিষ্ঠান অচল হয়ে পড়েছে। বিশেষ করে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, হাসপাতাল ও ব্যাংক লোকবলের অভাবে সেবা দিতে পারছে না। এর মধ্যে গত শনিবার জান্তা সরকার হুমকি দেয়, কাজে না ফিরলে সরকারি চাকরিজীবীদের বরখাস্ত করা হবে। গতকাল থেকে এই সিদ্ধান্ত কার্যকর হওয়ার কথা।

জান্তা সরকারের হুমকির পরও সরকারি চাকরিজীবীরা কাজে ফেরেননি। বরং তাঁদের সঙ্গে গতকাল একাত্মতা ঘোষণা করেছে ব্যবসায়ী সংগঠনগুলো। এরই মধ্যে অনেক কলকারখানা বন্ধ করে দিয়েছে তারা। ব্যবসায়ীদের ১৮টি ইউনিয়ন গতকাল এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘বাণিজ্য ও অর্থনীতিকে সচল রাখার মানে হলো সামরিক বাহিনীকে সহায়তা করা, যারা গণতন্ত্রকামী জনতাকে দমিয়ে রাখার চেষ্টা করছে।’

এদিকে বিক্ষোভের রাশ টানার লক্ষ্যে গত রবিবার রাতেও বিভিন্ন শহরে ধরপাকড় চালিয়েছে পুলিশ ও সেনাবাহিনী। আতঙ্ক ছড়াতে অনেক এলাকায় ফাঁকা গুলিও ছুড়েছে তারা। পর্যবেক্ষক সংস্থা অ্যাসিস্ট্যান্স অ্যাসোসিয়েশন ফর পলিটিক্যাল প্রিজনারসের (এএপিপি) হিসাব অনুযায়ী, জান্তা সরকার গত এক মাসে প্রায় এক হাজার ৮০০ ব্যক্তিকে আটক করেছে।

গ্রেপ্তার ও মৃত্যুঝুঁকি উপেক্ষা করে গতকালও ইয়াঙ্গুন, মান্দালয়সহ বেশ কয়েকটি শহরে বিক্ষোভ করেছে গণতন্ত্রকামী লাখো জনতা। এর মধ্যে কয়েকটি শহরে বিক্ষোভকারীদের ওপর চড়াও হয় নিরাপত্তা বাহিনী। উত্তরাঞ্চলীয় মায়িতকাইনা শহরে বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে গুলি চালায় পুলিশ। তাতে ঘটনাস্থলেই দুই বিক্ষোভকারী নিহত হয়। এ ছাড়া হাতে গুলিবিদ্ধ হয়ে তিনজন আহত হয়েছে। এদের মধ্যে এক নারী বিক্ষোভকারীও আছে। ফেসবুকে সরাসরি সম্প্রচার হওয়া এক ভিডিওতে দেখা গেছে, অনেকেই রক্তাক্ত অবস্থায় সড়কে পড়ে আছে। উদ্ধারকারীরা তাদের নিয়ে হাসপাতালে ছুটছেন। সূত্র : এএফপি।

 

মন্তব্য