kalerkantho

শনিবার । ২৭ চৈত্র ১৪২৭। ১০ এপ্রিল ২০২১। ২৬ শাবান ১৪৪২

রাতের ধরপাকড়েও দিনে উত্তাল রাজপথ

♦ মিয়ানমারে জান্তাবিরোধী আন্দোলন
♦ ‘এক মাসে অন্তত এক হাজার ৭০০ জন আটক’
♦ গতকাল বিক্ষোভ হয় ১০টি শহরে
♦ সবচেয়ে বড় জমায়েত হয় মান্দালয়ে

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৮ মার্চ, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রাতের ধরপাকড়েও দিনে উত্তাল রাজপথ

মিয়ানমারে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের দাবিতে জান্তা সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ অব্যাহত আছে। এর মধ্যে দেশটির রাজপথে সবচেয়ে বেশি মানুষের জমায়েত ঘটেছিল গতকাল রবিবার। যদিও বিক্ষোভের রাশ টানতে আগের রাতে বৃহত্তম শহর ইয়াঙ্গুনে ধরপাকড় চালান নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা।

মিয়ানমারের আট থেকে ১০টি শহরে গতকাল গণতন্ত্রকামী জনতা বিক্ষোভ করে। গতকাল সবচেয়ে বড় জমায়েত হয় দেশটির দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর মান্দালয়ে। সেখানে কয়েক হাজার বিক্ষোভকারী সড়কে অবস্থান কর্মসূচি পালন করে। এর আগে নিরাপত্তা বাহিনীর হাতে নিহতদের স্মরণে দুই মিনিট নীরবতা পালন করে তারা।

দেশটির বাণিজ্যিক রাজধানী ইয়াঙ্গুনের অন্তত তিনটি শহরে গতকাল বিক্ষোভ হয়েছে। স্থানীয়রা জানিয়েছে, আগের রাতে সেখানকার বিভিন্ন এলাকায় ধরপাকড় অভিযান চালান নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা। আতঙ্ক ছড়াতে ফাঁকা গুলিও চালান তাঁরা।

পর্যবেক্ষক সংস্থা অ্যাসিট্যান্স অ্যাসোসিয়েশন ফর পলিটিক্যাল প্রিজনারসের (এএপিপ) হিসাব অনুযায়ী, জান্তা সরকার গত এক মাসে অন্তত এক হাজার ৭০০ ব্যক্তিকে আটক করেছে। সংস্থাটি বলেছে, ‘আটক ব্যক্তিদের লাথি মারার পাশাপাশি লাঠি দিয়ে পেটাতে পেটাতে পুলিশের ভ্যানে তোলা হয়। আটক করার আগে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা বাড়িতে ফাঁকা গুলি ও ভাঙচুরও চালান।

জান্তা সরকারের দমন-পীড়নের মুখে মিয়ানমার থেকে অন্তত ৩০ জন মিজোরাম সীমান্ত দিয়ে ভারতে প্রবেশ করেছে। তাদের মধ্যে কয়েকজন পুলিশ সদস্যও রয়েছেন। তাদের দেশে ফেরত পাঠাতে ভারতের কাছে চিঠি পাঠিয়েছে জান্তা সরকার। গতকাল বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মিজোরামের চাম্পাই জেলার ডেপুটি কমিশনার মারিয়া সিটি জুয়ালি।

গত নভেম্বরের নির্বাচন নিয়ে অং সান সু চির নেতৃত্বাধীন সরকারের সঙ্গে সেনাবাহিনীর টানাপড়েন চলছিল। গত ১ ফেব্রুয়ারি সামরিক অভ্যুত্থান ঘটলে দেশটিতে অচলাবস্থা সৃষ্টি হয়। সূত্র : বিবিসি, এএফপি।

মন্তব্য