kalerkantho

বুধবার । ১৮ ফাল্গুন ১৪২৭। ৩ মার্চ ২০২১। ১৮ রজব ১৪৪২

প্রথম আলাপেই পুতিনকে বাইডেনের ‘হুঁশিয়ারি’

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৮ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



প্রথম আলাপেই পুতিনকে বাইডেনের ‘হুঁশিয়ারি’

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে প্রথম ফোনালাপে নতুন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন মানবাধিকার ও ইউক্রেন ইস্যুতে কঠোর ইঙ্গিত দিয়েছেন, সেই সঙ্গে পরমাণু ইস্যুতে তাঁকে স্বাগতও জানিয়েছেন। বাইডেনের প্রেসিডেন্সি শুরুর পর গত মঙ্গলবার প্রথম পুতিনের সঙ্গে ফোনে তাঁর কথা হয়। পরমাণু অস্ত্র চুক্তি নিয়ে আলোচনার উদ্দেশ্যে বাইডেন ফোন করলেও দুই নেতা আরো নানা ইস্যু নিয়ে কথা বলেন।

দুই নেতার ফোনালাপের তথ্য নিশ্চিত করে হোয়াইট হাউস জানায়, পুতিনের সঙ্গে প্রথম ফোনালাপে বিভিন্ন ইস্যু তোলেন বাইডেন। এসব ইস্যুর মধ্যে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনে রাশিয়ার হস্তক্ষেপ, যুক্তরাষ্ট্রে সাইবার হামলা, রাশিয়ায় বিরোধী নেতা আলেক্সেই ভালনির ওপর বিষ প্রয়োগ, ইউক্রেনে রুশ আগ্রাসন, মস্কো-ওয়াশিংটন পরমাণু অস্ত্র চুক্তি। পরমাণু অস্ত্র চুক্তির বিষয়টি বাদ দিলে বাকি বিষয়গুলোয় উদ্বেগ জানিয়ে কঠোর বার্তা দিয়েছেন বাইডেন—এমনটা জানিয়েছে তাঁর কার্যালয়। রুশ সরকারের অনুরোধেই গত মঙ্গলবার হোয়াইট হাউস থেকে ফোন করা হয়েছে বলে বিবৃতিতে জানানো হয়।

এদিকে ক্রেমলিনের বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, নির্বাচনে জয়লাভ করে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্সি গ্রহণ করায় বাইডেনকে অভিনন্দন জানিয়েছেন রাশিয়ার রাষ্ট্রনেতা। আলোচনায় উভয় পক্ষ নিজেদের মধ্যে যোগাযোগ আরো এগিয়ে নেওয়ার ব্যাপারেও একমত হয়েছে বলে জানায় সংবাদমাধ্যমগুলো।

যুক্তরাষ্ট্র বিবৃতিতে আরো বলে, ‘রাশিয়ার যেসব কর্মকাণ্ড আমাদের কিংবা আমাদের মিত্রদের জন্য ক্ষতিকর, সেসবের প্রতিক্রিয়ায় জাতীয় স্বার্থ সুরক্ষার স্বার্থে যুক্তরাষ্ট্র দৃঢ় পদক্ষেপ নেবে বলে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট বাইডেন।’

মঙ্গলবার দুই নেতার কথোপকথনে সোলার উইন্ড সাইবার হামলা, আফগানিস্তানে মার্কিন সেনা হত্যায় ক্রেমলিনের পুরস্কার দেওয়ার ঘোষণা এবং রাশিয়ার সরকারবিরোধী রাজনীতিক নাভালনিকে বিষ প্রয়োগে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ নিয়ে আলোচনা হয়েছে।

রুশ কর্মকর্তারা জানান, রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে সম্পর্ক স্বাভাবিক হলে তা দুই দেশের স্বার্থ রক্ষা এবং বিশ্বের নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতা বজায় সহায়ক ভূমিকা রাখবে বলে প্রেসিডেন্ট পুতিন উল্লেখ করেছেন। ‘সামগ্রিক বিচারে, রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের দুই নেতার আলোচনা ছিল অকপট ও যথোপযুক্ত’—এমন মন্তব্যও করেছে ক্রেমলিন।

রুশ-মার্কিন পরমাণু অস্ত্র নিয়ন্ত্রণের জন্য ‘নিউ স্টার্ট’ (স্ট্র্যাটেজিক আর্মস রিডাকশন ট্রিটি) শীর্ষক চুক্তির মেয়াদ বাড়ানো নিয়ে কথাবার্তা চলছে, ওই চুক্তি হয়েছিল যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার আমলে। ওই চুক্তিতে দুই দেশের অস্ত্রভাণ্ডারে পারমাণবিক ওয়ারহেড, ক্ষেপণাস্ত্র ও লঞ্চারের পরিমাণ নির্দিষ্ট করে দেওয়া হয়েছিল। আগামী মাসেই ‘নিউ স্টার্ট’ চুক্তির চলতি মেয়াদ শেষ হচ্ছে। পূর্বসূরি ডোনাল্ড ট্রাম্প এই চুক্তির মেয়াদ বাড়াতে অস্বীকৃতি জানালেও এটাকে এগিয়ে নিতে চলেছেন বাইডেন। সূত্র : এএফপি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা