kalerkantho

শুক্রবার । ২০ ফাল্গুন ১৪২৭। ৫ মার্চ ২০২১। ২০ রজব ১৪৪২

আটকে পড়া ১১ খনি শ্রমিক উদ্ধার

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৫ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আটকে পড়া ১১ খনি শ্রমিক উদ্ধার

চীনের হুশান খনিতে আটকে পড়া শ্রমিকদের ১১ জনকে উদ্ধার করা হয় গতকাল। ছবি : এএফপি

চীনের হুশান খনিতে দুই সপ্তাহ ধরে আটকে থাকার পর গতকাল রবিবার ১১ শ্রমিককে উদ্ধার করা হয়েছে।

স্থানীয় সময় গতকাল সকাল ১১টা নাগাদ প্রথম একজন শ্রমিককে খনির ৫৮০ মিটার গভীর থেকে বের করে আনা হয়। রাষ্ট্রায়ত্ত সংবাদমাধ্যম সিসিটিভির ফুটেজে দেখা যায়, এত দিন মাটির গভীরে আটকে থাকা শ্রমিকের চোখ সূর্যের আলো থেকে রক্ষার জন্য কালো কাপড়ে ঢেকে রাখা হয়েছে। তিনি খুব দুর্বল ছিলেন। তাঁকে ভারী কম্বলে জড়িয়ে উদ্ধারকারীরা হাসপাতালে নিয়ে যান।

পরে আহত একজনসহ তিন শ্রমিককে উদ্ধার করা হয়। বিকেলে দুই ধাপে ওই স্থান থেকে আরো সাত শ্রমিককে বের করে আনেন উদ্ধারকারীরা। তাঁদের চোখও কালো কাপড় দিয়ে ঢেকে রাখা হয়েছিল। কয়েকজন ঠিকভাবে হাঁটতেও পারছিলেন না। তাঁদের সবাইকেই হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। তবে বাকি ১০ জনের কোনো খোঁজ এখনো পাননি উদ্ধারকারীরা।

চলতি মাসের ১০ তারিখ চীনের পূর্বাঞ্চলীয় শানদং প্রদেশের ইয়ানতাই শহরের কাছাকাছি হুশান খনিতে এক বিস্ফোরণে ২২ শ্রমিক মাটির প্রায় ৬০০ মিটার নিচে আটকে পড়েন। এক সপ্তাহ আগে ১১ শ্রমিকের সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়। তাঁদের মধ্যে গুরুতর আহত একজন এরই মধ্যে মারা গেছেন।

বাকি ১০ জনের পাশাপাশি পরে আরেক শ্রমিকের খোঁজ পান উদ্ধারকারীরা। গতকাল তাঁদের সবাইকে উদ্ধার করা হয়।

এদিকে নিখোঁজ ১০ শ্রমিকের ব্যাপারে এখনো কূল-কিনারা করতে পারেননি উদ্ধাকারীরা। তাঁরা খনির আরো গভীরে রয়েছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। সাড়া না পাওয়ায় তাঁদের জীবিত উদ্ধার করা সম্ভব হবে কি না, তা নিয়ে সন্দেহ দেখা দিয়েছে। তাঁদের খোঁজ পেতে লাইফ ডিটেক্টর ব্যবহার করা হচ্ছে।

গ্লোবাল টাইমসকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে উদ্ধারকারী দলের বিশেষজ্ঞ দু বিংজিয়ান বলেন, ‘নিখোঁজ খনি শ্রমিকদের কাছে উদ্ধারকারীরা কবে নাগাদ পৌঁছতে পারবেন, তা স্পষ্ট নয়।’

সূত্র : রয়টার্স।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা