kalerkantho

বুধবার । ১৮ ফাল্গুন ১৪২৭। ৩ মার্চ ২০২১। ১৮ রজব ১৪৪২

তালেবান হামলায় ১২ জন নিহত রাজধানীতে আরো ২

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৭ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গৃহযুদ্ধকবলিত আফগানিস্তানে অল্প সময়ের ব্যবধানে দুটি হামলায় আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ১৪ সদস্য নিহত হয়েছেন। একটি হামলা তালেবানরা করেছে—এমনটা নিশ্চিত হওয়া গেলেও অন্য হামলার পেছনে কারা রয়েছে, তা আপাতত জানা যায়নি।

দুটি হামলার প্রথমটি হয় স্থানীয় সময় গত শুক্রবার রাতে। আফগানিস্তানের পশ্চিমাঞ্চলীয় হেরাত প্রদেশের গরিয়ান জেলায় তালেবানরা ওই হামলা চালায়। হেরাতের প্রাদেশিক গভর্নর ফরহাদ খাদেমি জানান, সরকারপন্থী আধাসামরিক বাহিনীর ঘাঁটিতে ঢুকে হামলা চালায় দুই তালেবান যোদ্ধা। হামলার সময় ঘাঁটির লোকজন রাতের খাবার খাচ্ছিলেন। ওই সময় দুই তালেবানের হামলায় ১২ জন নিহত হন।

তালেবানরা হেরাতে আধাসামরিক বাহিনীর ঘাঁটিতে হামলার দায় স্বীকার করেছে। সশস্ত্র গোষ্ঠীটি জানিয়েছে, হামলার পর দুই তালেবান নিরাপদে ফিরে গেছে।

আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ওপর দ্বিতীয় হামলাটি হয় রাজধানী কাবুলে। ওই হামলায় দুই পুলিশ সদস্য নিহত ও একজন আহত হন। গতকাল শনিবার কাবুল ইউনিভার্সিটিগামী একটি সড়কের পাশে পেতে রাখা বোমা বিস্ফোরণে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে। পুলিশের মুখপাত্র ফেরদাউস ফারামার্জ বিস্ফোরণে হতাহতের তথ্য নিশ্চিত করেন। কারা এ হামলা করেছে, এ ব্যাপারে সরকারপক্ষ তাত্ক্ষণিক কিছু জানায়নি। কোনো সশস্ত্র গোষ্ঠীও আপাতত এ হামলার দায় স্বীকার করে বিবৃতি দেয়নি।

আফগান সরকারের সঙ্গে তালেবানদের শান্তি আলোচনা চলা সত্ত্বেও দেশজুড়ে সহিংসতা কমার কোনো লক্ষণ নেই। অথচ এরই মধ্যে তালেবানদের সঙ্গে চুক্তির ভিত্তিতে সেনা সরিয়ে নিতে শুরু করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

সন্ত্রাসবিরোধী লড়াইয়ের নামে যুক্তরাষ্ট্র ২০০১ সালে আফগানিস্তানে যখন সামরিক হামলা শুরু করে, তখন মধ্যপ্রাচ্যের ওই দেশে মার্কিন সেনার সংখ্যা ছিল এক লাখের বেশি। সেই সংখ্যা বেশ আগে থেকেই কমাতে শুরু করে যুক্তরাষ্ট্র। সূত্র : এএফপি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা