kalerkantho

শনিবার। ২ মাঘ ১৪২৭। ১৬ জানুয়ারি ২০২১। ২ জমাদিউস সানি ১৪৪২

উপাসনালয়ে সমাবেশ

নিউ ইয়র্কে মেয়রের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টের অবস্থান

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৮ নভেম্বর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নিউ ইয়র্কের করোনাভাইরাসের সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ এলাকায় রেড জোনের উপাসনালয়গুলোতে একসঙ্গে ১০ জনের বেশি প্রার্থনা করতে পারবেন না বলে নিয়ম করেছিলেন রাজ্যের মেয়র অ্যান্ড্রু কুমো। যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রিম কোর্ট গত বৃহস্পতিবার মেয়রের এই নির্দেশের বিরুদ্ধে সিদ্ধান্ত দিয়েছেন। তাঁরা মনে করেন, এই নির্দেশ সংবিধানের প্রথম সংশোধনী ধর্মচর্চার স্বাধীনতার বিরুদ্ধে যায়।

যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রিম কোর্ট তাঁর সবশেষ এই সিদ্ধান্তের মধ্য দিয়ে রক্ষণশীলতার বার্তা দিলেন। করোনার সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে নিউ ইয়র্ক অঙ্গরাজ্যের গভর্নরের নিষেধাজ্ঞা পাল্টে দিলেন দেশটির সর্বোচ্চ আদালত। সুপ্রিম কোর্টে রক্ষণশীলদের পক্ষে এমন রায় আসার পর প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প নড়েচড়ে বসেছেন। কারণ প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে পরাজয় মানতে অস্বীকৃতি জানিয়ে তিনি বসে আছেন সুপ্রিম কোর্টের আশায়। ধর্মীয় সমাবেশ নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের রায়ে উচ্ছ্বসিত হয়ে ‘থ্যাংকস গিভিং ডে’র দিনেও টুইট করেছেন ট্রাম্প।

গভর্নর কুমোর জারি করা নিয়ন্ত্রণমূলক নির্দেশের বিরুদ্ধে ক্যাথলিক চার্চ ও ইহুদিদের দুটি ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে নিম্ন আদালতে মামলা করা হয়। ডায়োসিস অব ব্রুকলিন ও আগুদাহ ইসরায়েল অব আমেরিকা নামের নিউ ইয়র্কের দুটি ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে এ মামলা করা হয়। সেখানে অঙ্গরাজ্য গভর্নরের পক্ষে রায় যাওয়ার পর ধর্মীয় গোষ্ঠী দুটি এ নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে যায়।

সুপ্রিম কোর্টে করা আবেদনে বলা হয়, ধর্মীয় সমাবেশের ওপর কড়াকড়ি আরোপের ফলে নাগরিকদের সাংবিধানিক অধিকার খর্ব হচ্ছে। ৫-৪ সংখ্যাগরিষ্ঠতায় সুপ্রিম কোর্ট ধর্মীয় গোষ্ঠীর পক্ষে রায় দেন। সুপ্রিম কোর্টে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সবশেষ নিয়োগ দেওয়া বিচারপতি অ্যামি কোনি ব্যারেট এ মামলায় রক্ষণশীলদের পক্ষে অবস্থান নিয়েছেন। সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি হিসেবে ব্যারেট প্রথম রায়ে রক্ষণশীলদের পক্ষে তাঁর অবস্থান সুস্পষ্ট করলেন। ফলে ভবিষ্যতে যুক্তরাষ্ট্রের বহু উদারনৈতিক ইস্যু সুপ্রিম কোর্টে বাধাগ্রস্ত হওয়ার আশঙ্কা তীব্র হয়ে উঠেছে। প্রধান বিচারপতি জন রবার্টস রক্ষণশীল হলেও এ মামলায় তিনি উদার নৈতিকদের পক্ষে অবস্থান গ্রহণ করেন। সূত্র : এএফপি।

মন্তব্য