kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ১ ডিসেম্বর ২০২০। ১৫ রবিউস সানি ১৪৪২

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন ২০২০
জ্বলে উঠেছেন বাইডেন

ট্রাম্প করোনার কাছে আত্মসমর্পণ করেছেন

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৭ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ট্রাম্প করোনার কাছে আত্মসমর্পণ করেছেন

প্রচারের প্রায় শেষ মুহূর্তে এসে জ্বলে উঠেছেন ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেন। গত সপ্তাহ পর্যন্ত কচ্ছপগতিতে এগোলেও এখন তিনি রীতিমতো খরগোশ! যেমন চালে-সফরে, ঠিক তেমনি কথার তোপে। ৭৭ বছর বয়সী এই প্রার্থী গত রবিবার দাবি করেন, কভিড-১৯-এর কাছে আত্মসমর্পণ করেছেন তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। করোনাভাইরাসের নতুন পর্যায়ের সংক্রমণ শুরু হয়েছে এবং তা দেশজুড়ে ছড়াচ্ছে। এই বাস্তবতার মধ্যেই ট্রাম্পের চিফ অব স্টাফ গত রবিবার মন্তব্য করেন, ট্রাম্প প্রশাসন মহামারিকে নিয়ন্ত্রণ করতে যাচ্ছে না।

যদিও প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ভাইরাসের ব্যাপারে তাঁর আগের মন্তব্যেই অটল, ‘কোনো দেশ আমাদের মতো করে কভিড নিয়ন্ত্রণ করতে পারেনি। আর কোনো দেশ আমাদের মতো স্বাভাবিক অবস্থায় নেই।’ যদিও প্রেসিডেন্টের এই দাবি এখন কৌতুককর পর্যায়ে পৌঁছে গেছে। যুক্তরাষ্ট্রে করোনার দৈনিক সংক্রমণের নতুন নতুন রেকর্ড হচ্ছে। মৃতের সংখ্যা এরই মধ্যে দুই লাখ ৩০ হাজার ছাড়িয়েছে।

এদিকে ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্সের ঘনিষ্ঠ পাঁচজন সহযোগী এই ভাইরাসে আক্রান্ত হলেও তিনি কোয়ারেন্টিনে না গিয়ে প্রচার চালিয়ে যাচ্ছেন। বিষয়টি নিয়ে তীব্র সমালোচনা তৈরি হয়েছে। হোয়াইট হাউস অবশ্য ফেডারেল আইন অনুযায়ী পেন্সের ‘জরুরি কর্মী’ পদমর্যাদার কথা উল্লেখ করে তিনি প্রচার চালিয়ে যেতে পারবেন বলে জানিয়েছে।

রবিবার সিএনএনের ‘স্টেট অব দ্য ইউনিয়ন’ অনুষ্ঠানে হোয়াইট হাউসের চিফ অব স্টাফ মেডোউস বলেছেন, ‘আমরা মহামারিকে নিয়ন্ত্রণ করতে যাচ্ছি না। আমরা টিকা, চিকিৎসা ও প্রশমণের অন্যান্য উপায়ের মাধ্যমে এর প্রভাব নিয়ন্ত্রণ করতে যাচ্ছি।’

এসব নিয়ে ট্রাম্পকে আক্রমণ করতে গিয়ে ডেমোক্রেটিক প্রার্থী জো বাইডেন রবিবার এক বিবৃতিতে বলেন, ‘ট্রাম্প মহামারির কাছে আত্মসমর্পণ করেছেন। প্রশাসন এই মহামারি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টাও ছেড়ে দিয়েছে বলে আজ (রবিবার) সকালে আশ্চর্যজনকভাবে স্বীকার করলেন মেডোউস, আমেরিকান জনগণকে সুরক্ষা দেওয়ার মূল দায়িত্বও তারা ছেড়ে দিয়েছে।’ বিবৃতিতে আরো বলা হয়, ‘মেডোউস ভুল করে এ কথা বলেননি। এই সংকট শুরু হওয়ার পর থেকে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের কৌশলের বিষয়ে এটি একটি স্পষ্ট স্বীকারোক্তি : পরাজয়ের সাদা পতাকা নাড়িয়ে আশা করা হচ্ছে অগ্রাহ্য করার মাধ্যমে ভাইরাসটি সহজেই চলে যাবে। এটা হয় না, হবেও না।’

যদিও নিউ হ্যাম্পশায়ারের একটি বিমানবন্দরে আয়োজিত জনসভায় ট্রাম্প বলেছেন, ‘বিশ্বের আর কোনো দেশ আমাদের মতো স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরতে পারেনি। আমরা কাটিয়ে উঠছি, আমরা মোড় ঘুরিয়ে দিচ্ছি, আমাদের টিকা আসবে শিগগিরই, আমাদের সব আছে। এমনকি টিকা ছাড়াই আমরা মোড় ঘুরিয়ে দিচ্ছি।’ এই জনসভায়ও তাঁর সমর্থকদের অনেকেরই মুখে মাস্ক ছিল না এবং তাঁরা নির্দেশনা অনুযায়ী সামাজিক দূরত্বও বজায় রাখেননি। কভিড-১৯-এর অনেকগুলো টিকা উৎপাদিত হওয়ার পথে থাকলেও সেগুলোর কোনোটিই যুক্তরাষ্ট্রে ব্যবহারের অনুমোদন দেওয়া হয়নি। আগামী ডিসেম্বরের আগে তেমন কোনো টিকা পাওয়া যাবে না বলে জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের সংক্রামক রোগের শীর্ষ বিশেষজ্ঞ অ্যান্থনি ফাউচি।

আগাম ভোট ৬ কোটি

ফ্লোরিডা বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্বাচন প্রজেক্টের তথ্য অনুযায়ী, ৩ নভেম্বরের নির্বাচনের ৯ দিন আগেই রবিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত প্রায় পাঁচ কোটি ৯৪ লাখ ভোটার তাঁদের ভোট দিয়ে দিয়েছেন। এই সংখ্যা এরই মধ্যে ২০১৬ সালের আগাম ভোট প্রদানের সংখ্যা ছাড়িয়ে গেছে। আগামী ১ নভেম্বর পর্যন্ত আগাম ভোট নেওয়া হবে। সূত্র : এএফপি, এনবিসি।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা