kalerkantho

মঙ্গলবার । ১১ কার্তিক ১৪২৭। ২৭ অক্টোবর ২০২০। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

কেন কাশ্মীর নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন এরদোয়ান?

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রেসেপ তাইয়িপ এরদোয়ান সুযোগ পেলেই কাশ্মীর প্রসঙ্গে নানা অভিমত দিচ্ছেন। সম্প্রতি তিনি জাতিসংঘের সাধারণ সভার অধিবেশনে কাশ্মীর প্রসঙ্গ তুলে ভারতের সমালোচনা করলেন। ভারতও কঠোর ভাষায় পাল্টা জবাব দিয়েছে।

এরদোয়ান ভাষণে বলেছিলেন, জাতিসংঘে গৃহীত প্রস্তাবের কাঠামোর মধ্যে আলোচনার মাধ্যমেই কাশ্মীর সমস্যার সমাধান করতে হবে। কিন্তু কাশ্মীরে দিল্লির সিদ্ধান্তই পরিস্থিতিকে জটিল করে তুলেছে। জবাবে ভারত বলেছে, এই মন্তব্য ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপের শামিল এবং তা ‘সম্পূর্ণ অগ্রহণযোগ্য’। বছর তিনেক আগে ভারত সফরে আসার ঠিক আগে কাশ্মীর ইস্যুতে মধ্যস্থতার প্রস্তাব দিয়েও এরদোয়ান দিল্লিকে চরম অস্বস্তিতে ফেলেছিলেন। বারবার কাশ্মীর প্রসঙ্গ উত্থাপন করে এর মাধ্যমে তুরস্ক ঠিক কী লক্ষ্য অর্জন করতে চাইছে? ইউরোপিয়ান কাউন্সিল অন ফরেন রিলেশনসের সিনিয়র পলিসি ফেলো আসলি আয়দিনতাসবাস বলেন, আসলে তুরস্ক একটি গ্লোবাল ব্র্যান্ড হিসেবে নিজেদের উন্নীত করতে চায়। একটি মাঝারি মাপের উদীয়মান শক্তি থেকে একুশ শতকের সবচেয়ে ক্ষমতাশালী দেশগুলোর কাতারে তুরস্ককে যাতে নিয়ে যাওয়া যায়, প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান তাঁর লিগ্যাসিকে সেভাবেই রেখে যাওয়ার চেষ্টা করছেন এবং এখানে তিনি কাশ্মীরকে একটি বড় সুযোগ হিসেবে দেখছেন।

তিনি আরো বলেন, মধ্যপ্রাচ্য ও সিরিয়ার উত্তেজনা এবং দেশের ভেতরে মানবাধিকার রেকর্ডের কারণে তুরস্কের আন্তর্জাতিক ভাবমূর্তি এমনিতেই ক্ষতিগ্রস্ত, এখন কাশ্মীরকে আঁকড়ে ধরে তুরস্ক বিশ্বের ক্ষমতার রাজনীতিতে একটি মধ্যপন্থী শক্তি হিসেবে উঠে আসতে চাইছে। সূত্র : বিবিসি।

মন্তব্য