kalerkantho

মঙ্গলবার । ১১ কার্তিক ১৪২৭। ২৭ অক্টোবর ২০২০। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

দ্বিতীয় ইন্তিফাদার দুই দশক

শুধুই হারানোর গল্প ফিলিস্তিনিদের

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শুধুই হারানোর গল্প ফিলিস্তিনিদের

মোটা দাগে ফিলিস্তিনিদের প্রথম বিপ্লব তথা ইন্তিফাদা ঘটে ১৯৮৭ সালে। অসলো চুক্তির মধ্য দিয়ে এর ইতি ঘটে ১৯৯৩ সালে। দ্বিতীয় দফা ইন্তিফাদা ঘটে ২০০০ সালে। প্রথম ইন্তিফাদার পর ফিলিস্তিনিরা আপাতদৃষ্টিতে স্থির হতে পারলেও দ্বিতীয় দফার পর আর সেটা সম্ভব হয়নি। এর পর থেকে তারা আর কখনো শান্তির দেখা পায়নি। উল্টো হারিয়েছে অনেক কিছু।

ইসরায়েলি দখলে থাকা জেরুজালেমে অবস্থিত আল আকসা মসজিদ মুসলিম-ইহুদি উভয় সম্প্রদায়ের কাছে সমান গুরুত্বপূর্ণ। ২০০০ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর ওই মসজিদ পরিদর্শনে যান ইসরায়েলের তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেতা এরিয়েল শ্যারন। বিতর্কিত ওই ঘটনা দ্বিতীয় দফা ইন্তিফাদার জন্ম দেয়। নতুন করে শুরু হয় ফিলিস্তিনি প্রাণক্ষয়। পরের বছর শ্যারন ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী হন এবং ২০০২ সালের মার্চ থেকে পশ্চিম তীরে ভয়াবহ বিমান হামলা শুরু করেন। ওই হামলায় প্যালেস্টাইন লিবারেশন অর্গানাইজেশন (পিএলও) সদর দপ্তরের প্রধান অংশ গুঁড়িয়ে যায়। গৃহবন্দি করা হয় পিএলও নেতা ইয়াসির আরাফাতকে। বন্দি দশায়ই ২০০৪ সালে তাঁর মৃত্যু হয়।

২০০৫ সালে ইসরায়েলি ও ফিলিস্তিনি নেতাদের যৌথ ঘোষণায় দ্বিতীয় ইন্তিফাদার সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়। পরের বছর থেকেই চরম অভ্যন্তরীণ কোন্দলে জড়িয়ে পড়ে ফিলিস্তিনিরা। ওই ভূখণ্ডে ২০০৬ সালের নির্বাচনে হামাস জয় পেলেও দ্বন্দ্বের জেরে তারা সরকার গঠন করতে পারেনি। বর্তমানে হামাস গাজায় ও ফাতাহ পশ্চিম তীরে আধিপত্য ধরে রেখেছে।

২০০৮, ২০১২ ও ২০১৪ সালে হামাসবিরোধী বড় ধরনের বিমান হামলা চালায় ইসরায়েল। ২০১৮ সালে ইসরায়েলে নিজ ভূখণ্ডে ফেরার দাবিতে সাপ্তাহিক পদযাত্রা শুরু করে ফিলিস্তিনিরা। তাদের ওই কর্মসূচি এখনো চলছে।

২০১৭ সালের ডিসেম্বরে জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানীর স্বীকৃতি দেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। সেই স্বীকৃতির বাস্তবায়ন হিসেবে পরের বছর মে মাসে ইসরায়েলের তেল আবিব থেকে মার্কিন দূতাবাসটি সরিয়ে স্থাপন করা হয় জেরুজালেমে।

এ বছর জানুয়ারিতে ট্রাম্প এমন এক শান্তি পরিকল্পনা হাজির করেন, যেখানে ফিলিস্তিনে ইসরায়েলের দখলদারির প্রতি পরোক্ষ সম্মতি দেওয়া হয়। সর্বশেষ গত ১৫ সেপ্টেম্বর ফিলিস্তিনিদের স্বাধীন রাষ্ট্রের স্বপ্ন পদদলিত করে ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিকীকরণ চুক্তি সই করে সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইন। নিষ্ফল প্রতিবাদ হিসেবে আরব লীগের সভাপতির পদ ছেড়ে দেয় ফিলিস্তিন। সূত্র : এএফপি।

মন্তব্য