kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৬ কার্তিক ১৪২৭। ২২ অক্টোবর ২০২০। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

কৃষি বিলের প্রতিবাদে ভারতে বন্ধ

রেল সড়ক অবরোধ

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



কৃষি বিলের প্রতিবাদে ভারতে বন্ধ

লোকসভায় পাস হওয়া কৃষি বিলের প্রতিবাদে গতকাল ভারতজুড়ে বন্ধ চলাকালে পাঞ্জাবের অমৃতসরে সড়ক অবরোধ করেন কৃষকরা। ছবি : এএফপি

পার্লামেন্টে পাস হওয়া নতুন কৃষি বিলের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে ভারতের বিভিন্ন প্রান্তে। গতকাল শুক্রবার রাস্তায় নেমে এই বিলের প্রতিবাদ করেছেন কৃষকরা। দেশের কৃষক সংগঠনগুলো যৌথভাবে এদিন ভারতজুড়ে বনেধর ডাক দেয়। কংগ্রেসসহ দেশের বেশির ভাগ বিরোধী দলের নীতিগত সমর্থন রয়েছে এই বনেধ। পাঞ্জাব ও হরিয়ানার বিভিন্ন জায়গা ছাড়াও কর্ণাটক, মহারাষ্ট্র, বিহারেও চলছে প্রতিবাদ বিক্ষোভ। কোথাও রাস্তা আটকে, কোথাও ‘রেল রোকো’ অভিযানের মাধ্যমে এই বিলের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাচ্ছেন কৃষকরা। পরিস্থিতি যাতে নিয়ন্ত্রণের বাইরে না যায়, সে জন্য প্রচুর পুলিশও মোতায়েন করা হয়।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেছেন, কৃষকদের ভুল বোঝাচ্ছে কিছু মানুষ। অন্যদিকে সরকারকে আক্রমণ করে চলেছে বিরোধী দলগুলো। কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী বলেছেন, ‘নয়া কৃষি বিল কৃষকদের ক্রীতদাসে পরিণত করবে।’ কৃষক সংগঠনগুলোর ডাকা ভারত বন্ধ সমর্থন করার আরজিও জানান রাহুল।

গতকাল পাঞ্জাব ও হরিয়ানায় বনেধর প্রভাব ছিল সবচেয়ে বেশি। অমৃতসর, জালন্ধর, লুধিয়ানা, অম্বালা, চণ্ডীগড়সহ সেখানকার বিভিন্ন জায়গায় রাস্তা অবরোধ করে বিভিন্ন কৃষক সংগঠন। জালন্ধরের কাছে সকাল থেকেই অমৃতসর-দিল্লি জাতীয় সড়ক অবরোধ করে ভারতীয় কিষান ইউনিয়ন ও রেভল্যুশনারি মার্ক্সিস্ট পার্টি অব ইন্ডিয়া। অম্বালায় বিক্ষোভের জেরে বন্ধ রয়েছে দিল্লি-চণ্ডীগড় বাস পরিষেবা। লুধিয়ানার চিত্রটাও একই রকম। কিষান মজদুর সংঘর্ষ কমিটি বৃহস্পতিবার থেকেই পাঞ্জাবজুড়েই চালাচ্ছে ‘রেল রোকো’ অভিযান। পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিং বিক্ষোভকারী কৃষকদের করোনাভাইরাস সুরক্ষাবিধি মেনে শান্তিপূর্ণভাবে বিক্ষোভ করার আবেদন জানিয়েছেন। এনডিএর শরিক শিরোমণি আকালি দলও এই বিলের প্রতিবাদে পাঞ্জাবজুড়ে তিন ঘণ্টার ‘চাক্কা জ্যাম’ কর্মসূচি নিয়েছে।

কৃষি বিল ২০২০-এর প্রতিবাদে নেমেছে কর্ণাটকের রাজ্য কৃষক সংগঠনও। বোম্মানহালিতে কর্ণাটক-তামিলনাড়ু জাতীয় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন সে রাজ্যের কৃষকরা। বিক্ষোভ হয়েছে মহারাষ্ট্র, উত্তর প্রদেশেও।

বিহারে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে রাস্তায় নামেন লালু প্রসাদ যাদবের দুই ছেলে। কৃষকদের নিয়ে পাটনার রাস্তায় শোভাযাত্রাও করেছেন তাঁরা। শোভাযাত্রায় রাষ্ট্রীয় জনতা দলের (আরজেডি) নেতা তেজস্বী যাদবকে দেখা গেছে ট্রাক্টর চালাতে। তখন তাঁর দাদা তেজপ্রতাপ যাদব চড়েছিলেন ট্রাক্টরের মাথায়। এই বিলকে কৃষকবিরোধী আখ্যা দিয়ে তেজস্বী বলেছেন, “সরকার আমাদের ‘অন্নদাতাদের’ পুতুল বানানোর চেষ্টা করছে। ২০২২-র মধ্যে কৃষকদের রোজগার দ্বিগুণ করার কথা বলেছিল সরকার। কিন্তু এই বিল তাদের আরো গরিব করবে।” সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা