kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৬ কার্তিক ১৪২৭। ২২ অক্টোবর ২০২০। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

ইউরোপে আক্রান্তের হার বাড়ছেই

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২১ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ইউরোপে আক্রান্তের হার বাড়ছেই

করোনা সংক্রমণের প্রথম ধাক্কা সামলে উঠতে না উঠতেই দ্বিতীয় ধাক্কা লেগেছে ইউরোপের দেশগুলোতে। এর মধ্যে আবার শীতকাল চলে আসছে। ফলে করোনা সংক্রমণ নিয়ে আরেকবার বড় ধরনের সংকটে পড়তে যাচ্ছে তারা। অনেক দেশ এরই মধ্যে জীবনযাপনে নতুন করে বিধি-নিষেধ আরোপের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

বৈশ্বিক পরিসংখ্যানভিত্তিক ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারের হিসাব অনুযায়ী, গত এক মাসে ইউরোপের দেশগুলোতে প্রায় ১১ লাখ মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। আগের মাসে (২০ আগস্ট থেকে ২০ সেপ্টেম্বর) আক্রান্তের সংখ্যা ছিল সাড়ে ছয় লাখের মতো। ইউরোপিয়ান সেন্টার ফর ডিজিজ প্রিভেনশন অ্যান্ড কন্ট্রোল (ইসিডিসি) জানিয়েছে, ইউরোপে ১৫ দিন ধরে দৈনিক আক্রান্তের হার আবার ৪৫ হাজার অতিক্রম করেছে। দৈনিক মৃত্যুর হার টানা ৭২ দিন ধরে স্থিতিশীল রয়েছে। তবে বুলগেরিয়া, ক্রোয়েশিয়া, মাল্টা, রোমানিয়া ও স্পেনে মৃত্যুর হার আবার বাড়তে শুরু করেছে।

সংক্রমণের হার বাড়লেও ইউরোপের অবস্থা এখনো যুক্তরাষ্ট্রের তুলনায় অনেক ভালো। ইউরোপের জনসংখ্যা ৭৫ কোটি। সেখানে এ পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা ৪৪ লাখ; মৃত্যু হয়েছে দুই লাখ ১৭ হাজার মানুষের। অন্যদিকে যুক্তরাষ্ট্রের জনসংখ্যা (৩৩ কোটি) ইউরোপের অর্ধেকের কম হলেও সেখানে আক্রান্তের সংখ্যা ৬৭ লাখের বেশি। মৃতের সংখ্যা প্রায় দুই লাখ।

গত শুক্রবার যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন বলেন, ‘আমরা এখন সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউয়ের মধ্যে আছি এবং এটা অবধারিত ছিল।’

এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে ভারতে সংক্রমণের হার সবচেয়ে বেশি। দেশটিতে কয়েক দিন ধরেই দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা এক লাখের কাছাকাছি। ভারতে আক্রান্তের সংখ্যা এরই মধ্যে ৫৪ লাখ ছাড়িয়েছে। মৃতের সংখ্যা প্রায় ৮৭ হাজার। অস্ট্রেলিয়ায় দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা এক মাসের মধ্যে সবচেয়ে নিচে নেমে এসেছে। গত শনিবার দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ১৮।

ওয়ার্ল্ডোমিটারের হিসাব অনুযায়ী, গতকাল পর্যন্ত বিশ্বের ২১৩টি দেশ ও অঞ্চলের অন্তত তিন কোটি ১০ লাখ মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে অন্তত ৯ লাখ ৬২ হাজার মানুষের। সেরে ওঠার সংখ্যাও কম নয়; দুই কোটি ২৬ লাখ ২১ হাজার ১২৪ জন। চিকিৎসাধীন আছে ৭৪ লাখ ৩৭ হাজার মানুষ। সূত্র : সিএনএন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা