kalerkantho

মঙ্গলবার । ১১ কার্তিক ১৪২৭। ২৭ অক্টোবর ২০২০। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

‘ট্রাম্পের ভাবনায় মানুষ নেই আছে শুধু পুুঁজিবাজার’

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



‘ট্রাম্পের ভাবনায় মানুষ নেই আছে শুধু পুুঁজিবাজার’

ডোনাল্ড ট্রাম্পকে প্রেসিডেন্সির অযোগ্য বলে মন্তব্য করার পর এবার তাঁকে অপরাধী আখ্যা দিয়েছেন তাঁর নির্বাচনী প্রতিদ্বন্দ্বী জো বাইডেন। মহামারি নিয়ন্ত্রণে মার্কিন প্রেসিডেন্টের ব্যর্থতা তুলে ধরে তাঁর বিরুদ্ধে ওই মন্তব্য করেন তিনি।

নিজের জন্ম শহর পেনসিলভানিয়ার স্ক্র্যানটনে এক টাউন হলে গত বৃহস্পতিবার নির্বাচনী সভা করেন বাইডেন। সেখানে তিনি এমন অনেক কথাই বলেছেন, যেগুলো ট্রাম্পের সঙ্গে তাঁর বেশ কিছু পার্থক্য স্পষ্ট করে দিয়েছে।

এবারের নির্বাচনী লড়াইকে ‘স্ক্র্যানটন বনাম পার্ক এভিনিউ’ শিরোনামে অভিহিত করে বাইডেন দাবি করেন, পার্ক এভিনিউর বাসিন্দা ট্রাম্প সেখান থেকে ওয়াল স্ট্রিট ছাড়া আর কিছু দেখতে পান না এবং ওয়াল স্ট্রিটের পুঁজিবাদ রক্ষা ছাড়া আর কোনো কাজও তাঁর নেই। এর বিপরীতে বাইডেন খেটে খাওয়া শ্রেণির সঙ্গে নিজেকে মিলিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেছেন।

আগামী মাসের মধ্যে করোনাভাইরাসের প্রতিষেধক আবিষ্কার ও জনগণের কাছে তা পৌঁছে দেওয়া নিয়ে ট্রাম্প যে বাগাড়ম্বর করেছেন, তাতে বিন্দুমাত্র আস্থা নেই জানিয়ে বাইডেন বলেন, ‘টিকার ব্যাপারে প্রেসিডেন্টের কথায় আমার আস্থা নেই। আমি ড. (অ্যান্থনি) ফাউচিকে বিশ্বাস করি।’ যুক্তরাষ্ট্রে সংক্রামক রোগ বিষয়ক শীর্ষ বিশেষজ্ঞ ড. ফাউচি যদি কোনো টিকা নিরাপদ ঘোষণা করেন, তবেই তিনি টিকা নেবেন, এমন কথাও বলেন বাইডেন।

প্রেসিডেন্টের প্রতি অনাস্থা জানিয়ে ক্ষান্ত হননি বাইডেন। মহামারির ভয়াবহতার কথা যে ট্রাম্প আগে থেকেই জানতেন, সেটা উল্লেখ করে বাইডেন বলেন, ‘তিনি সেটা জানতেন এবং কিছুই করেননি। এটা অপরাধের পর্যায়ে পড়ে। এই প্রেসিডেন্টের পদত্যাগ করা উচিত।’

সহানুভূতিশীল আচরণ করার যে প্রবণতা বাইডেনের আছে, সেটা গত বৃহস্পতিবারও ছিল অপরিবর্তিত। যারা বিভিন্ন রোগে ভুগছে, যাদের স্বজন মহামারিতে মারা গেছে, এমনকি যারা আর্থিক দুর্ভোগ পোহাচ্ছে তাদের সবার প্রতি সহানভূতি জানান এই ডেমোক্র্যাট নেতা। যে নার্স ২০১৬ সালের নির্বাচনে ট্রাম্পকে ভোট দিয়েছিলেন, তাঁকেও বাইডেন বলেন, ‘তুমি যা করেছ, সেটার জন্য ধন্যবাদ।’

মহামারি নিয়ন্ত্রণের নামে স্বাস্থ্যবিধি আরোপ করে মার্কিন জনগণের স্বাধীনতায় চরমতম হস্তক্ষেপ করা হচ্ছে বলে যে দাবি অ্যাটর্নি জেনারেল উইলিয়াম বার করেছেন, সেটার তীব্র বিরোধিতা করেছেন বাইডেন।

মহামারিসহ অন্যান্য ইস্যুতে বাইডেনের মানবিক সুরে কথা বলার বিপরীতে ট্রাম্পের কথার ধরন একেবারে ভিন্ন। তিনি সব সময় মারমুখী ভঙ্গিতে বক্তব্য দিচ্ছেন।

এই যেমন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প নিজেই স্বীকার করেছেন, তিনি মহামারির ভয়াবহতার কথা জানতেন। কিন্তু সব সময় তিনি সেটাকে খাটো করে দেখিয়েছেন, কারণ তিনি জনগণকে ভয় পাইয়ে দিতে চাননি। তিনি নিজেও কখনো স্বাস্থ্যবিধি মানেননি। উল্টো স্বাস্থ্যবিধি লঙ্ঘন করে নির্বাচনী প্রচারের জন্য তিনি বড় ধরনের জমায়েত করে চলেছেন। করোনাভীতি উপেক্ষা করে তিনি জনগণকে সশরীরে ভোটকেন্দ্রে গিয়ে ভোট দেওয়ার আহ্বানও জানিয়ে চলেছেন। সূত্র : এএফপি, সিএনএন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা