kalerkantho

শুক্রবার । ৭ কার্তিক ১৪২৭। ২৩ অক্টোবর ২০২০। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

ট্রাম্পের দাবি

চার সপ্তাহেই করোনার টিকা!

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



চার সপ্তাহেই করোনার টিকা!

বিশেষজ্ঞ মত উপেক্ষা করে ডোনাল্ড ট্রাম্প আবার দাবি করেছেন, সামনের মাসেই করোনাভাইরাসের টিকা পাওয়া যাবে। অর্থাৎ আর মাত্র চার সপ্তাহের মধ্যেই করোনার টিকা পাওয়া সম্ভব। পাওয়ামাত্রই তা সবার কাছে পৌঁছে দেওয়া হবে।

যুক্তরাষ্ট্রের সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশনের (সিডিসি) পরিচালক রবার্ট রেডফিল্ড টিকা আবিষ্কারে দেরি হওয়ার যে পূর্বাভাস দিয়েছেন, তা উড়িয়ে দিয়ে ওই দাবি করেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প।

সিনেটে দেওয়া বক্তব্যে গত বুধবার রেডফিল্ড জানান, আগামী নভেম্বর-ডিসেম্বর নাগাদ খুব সীমিত আকারে টিকা দেওয়া সম্ভব হতে পারে। আর সবার জন্য টিকা সহজলভ্য হতে আগামী বছর দ্বিতীয় প্রান্তিক এমনকি তৃতীয় প্রান্তিক পর্যন্ত সময় লেগে যেতে পারে। নিজের বক্তব্যের সমর্থনে রেডফিল্ড সেদিন সন্ধ্যায় টুইট করেন। তাতে তিনি টিকা আবিষ্কার হওয়ার আগ পর্যন্ত মার্কিন জনগণকে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়ে বলেন, ‘এ ভাইরাসের বিরুদ্ধে বর্তমানে আমাদের হাতে সবচেয়ে শক্তিশালী যে হাতিয়ার আছে, তা হলো মাস্ক পরা, হাত ধোয়া, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা এবং ভিড়ের ব্যাপারে সতর্ক থাকা।’

করোনা টিকা ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার ব্যাপারে আগেও বিভিন্ন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ রেডফিল্ডের মতো তথ্য দিয়েছেন। কিন্তু মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প আগের মতো এবারও এসব অভিমত পুরোপুরি উপেক্ষা করেছেন। টিকা আবিষ্কারে দেরির ব্যাপারে রেডফিল্ডের বক্তব্য প্রসঙ্গে গতকাল তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমি মনে করি, ওই কথা বলে তিনি ভুল করেছেন। তথ্যটা একদম ভুল।’ ট্রাম্পের দাবি, ‘আমরা টিকা পাওয়ার খুব কাছাকাছি পৌঁছে গেছি। আমাদের ধারণা, অক্টোবরের কোনো এক সময় আমরা টিকা দেওয়া শুরু করতে পারব।’ রেডফিল্ডের সমালোচনা করে ট্রাম্প বলেন, ‘আমার বিশ্বাস, তিনি বিভ্রান্ত হয়ে পড়েছিলেন।’

করোনার টিকা নিয়ে সিডিসি পরিচালক ও প্রেসিডেন্টের এসব বক্তব্যে নাক গলিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ডেমোক্রেটিক প্রার্থী জো বাইডেন। নির্বাচনী ময়দানে অন্য অনেক ইস্যুর পাশে মহামারি ইস্যুও গুরুত্বের সঙ্গে জায়গা করে নিয়েছে এবং অনিবার্যভাবে এ নিয়ে কথা বলেছেন বাইডেন। ট্রাম্পের প্রতি অনাস্থা জানিয়ে এই ডেমোক্র্যাট নেতা টুইট করেন, ‘আমি যখন বলেছি টিকায় আমার আস্থা আছে এবং বিজ্ঞানীদের প্রতি আমার আস্থা আছে, কিন্তু ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রতি আমার আস্থা নেই, আমি প্রকৃত অর্থে সে কথাই বুঝিয়েছি।’

ওই টুইট করার ঘণ্টাখানেক আগে বাইডেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে মত বিনিময় করেন এবং এরপর বলেন, মহামারি নিয়ন্ত্রণে গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপগুলো কার্যকর না করায় ট্রাম্প প্রেসিডেন্সির যোগ্যতা পুরোপুরি হারিয়েছেন। সূত্র : এএফপি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা