kalerkantho

সোমবার । ১৩ আশ্বিন ১৪২৭ । ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০। ১০ সফর ১৪৪২

এক বছর পর ফোরজি ইন্টারনেট কাশ্মীরে

নজর থাকবে নিরাপত্তায়

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১২ আগস্ট, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



এক বছর পর ফোরজি ইন্টারনেট পরিষেবা ফিরছে ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে। আগামী ১৫ আগস্টের পর জম্মু ও কাশ্মীরের একটি করে জেলায় পরীক্ষামূলকভাবে ফোরজি পরিষেবা চালু করা হবে জানিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। উপত্যকার নিরাপত্তার দিকটি খতিয়ে দেখে একটি বিশেষ কমিটি এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে জানানো হয়েছে।

গত বছর আগস্টের শুরুতে জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা প্রত্যাহার করার সিদ্ধান্ত নেয় কেন্দ্রীয় সরকার। একই সঙ্গে জম্মু-কাশ্মীর ও লাদাখ দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল গঠিত হয়। সেই থেকে গত এক বছর বহির্জগৎ থেকে বিচ্ছিন্ন ওই উপত্যকা। মাঝে বেশ কিছু এলাকায় টুজি পরিষেবা চালুর সিদ্ধান্ত নেয় কেন্দ্রীয় সরকার। কিন্তু করোনা পরিস্থিতিতে লকডাউন জারি হওয়ায় টুজি পরিষেবার মাধ্যমে অনলাইন ক্লাস বা বাড়ি থেকে কাজ করায় সমস্যা শুরু হয়। তা নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন জমা পড়ে। তার ভিত্তিতে গত সপ্তাহেই উপত্যকায় ফোরজি পরিষেবা চালু করা নিয়ে কেন্দ্রের মতামত জানতে চান শীর্ষ আদালত। গতকাল মঙ্গলবার তার শুনানি চালাকালীন পরীক্ষামূলকভাবে উপত্যকায় ফোরজি পরিষেবা চালুর প্রস্তুতি চলছে বলে জানান অ্যাটর্নি জেনারেল কেকে বেণুগোপাল।

এদিন আদালতে কেকে বেণুগোপাল জানান, ১৫ আগস্টের পর জম্মু ও কাশ্মীরের একটি করে জেলায় পরীক্ষামূলকভাবে ফোরজি পরিষেবা চালু করা হবে। দুই মাস পর পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে দেখে পরবর্তী সিদ্ধান্ত গৃহীত হবে।

তবে উপত্যকায় ফোরজি পরিষেবা চালুর আগে কেন্দ্রের তরফে বেশ কিছু সুপারিশ করা হয়েছে। সেগুলো হলো নিরাপত্তার দিকটি খতিয়ে দেখে আপাতত নির্দিষ্ট কিছু জায়গাতেই উচ্চ গতিসম্পন্ন ইন্টারনেট পরিষেবা চালু করা হবে। পরীক্ষামূলকভাবে ফোরজি পরিষেবা চালু হলেও আন্তর্জাতিক সীমান্ত এবং নিয়ন্ত্রণরেখাসংলগ্ন কোনো এলাকায় তা প্রযোজ্য হবে না। সন্ত্রাসী কাজকর্ম যেখানে কম এবং যেখান থেকে আশপাশের এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা কম, সেখানেই পরীক্ষামূলকভাবে ফোরজি পরিষেবা চালু করা যাবে। ফোরজি পরিষেবা চালু হওয়ার পর কোথায় কী প্রভাব পড়ছে, তাতে কোনোভাবে নিরাপত্তা বিঘ্নিত হচ্ছে কি না, সেদিকে নজর রাখতে হবে। প্রতি দুই মাসে পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে দেখবে কেন্দ্রীয় কমিটি। জম্মু ও কাশ্মীর ডিভিশনের একটি করে জেলাতেই আপাতত টুজি থেকে ফোরজি পরিষেবা চালু করা যাবে। ঝুঁকির কথা মাথায় রেখে ১৫ আগস্টের পরই পরিষেবা চালু করা যাবে উপত্যকায়।

প্রশাসনিক রদবদলের জেরেই উপত্যকায় ফোরজি পরিষেবা চালু করতে সময় লাগছে বলে এর আগে দাবি করেছিল জম্মু-কাশ্মীর প্রশাসন। শুক্রবার উপত্যকার লেফটেন্যান্ট গভর্নর হিসেবে শপথ নেন মনোজ সিং। তার পরই এদিন ফোরজি পরিষেবা চালুর সিদ্ধান্ত নেওয়া হলো। সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা