kalerkantho

সোমবার । ১৩ আশ্বিন ১৪২৭ । ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০। ১০ সফর ১৪৪২

নিউজিল্যান্ডে ১০২ দিন পর ফের সংক্রমণ

প্রথমবারের মতো লকডাউনে ভুটান

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১২ আগস্ট, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



নিউজিল্যান্ডে ১০২ দিন পর ফের সংক্রমণ

নিউজিল্যান্ডের সবচেয়ে বড় শহর অকল্যান্ডে নতুন করে করোনা রোগী শনাক্ত হওয়ায় সেখানকার সব বাসিন্দাকে ঘরে থাকতে বলা হয়েছে। দেশটিতে ১০২ দিন পর নতুন সংক্রমণ ধরা পড়ল। এদিকে গতকাল ভুটানে একজনের দেহে করোনা ধরা পড়ার পরই দেশজুড়ে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। করোনা মহামারিতে এই প্রথম লকডাউন ঘোষণা করল দক্ষিণ এশিয়ার দেশটি।

অকল্যান্ডে যে চারজনের সংক্রমণ ধরা পড়েছে, তারা একই পরিবারের সদস্য। কিন্তু সংক্রমণের উৎস এখন পর্যন্ত জানা যায়নি। দেশটির প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আরডার্ন বলেছেন, অন্য দেশের অভিজ্ঞতা দেখে তাঁরা শিখেছেন, এই ভাইরাস মোকাবেলায় শুরুতেই কঠোর হতে হবে। বুধবার দুপুর ১২টা থেকে শুক্রবার মধ্যরাত পর্যন্ত অকল্যান্ডে ‘লেভেল থ্রি’ পর্যায়ের লকডাউন জারি থাকবে। এর অর্থ অপরিহার্য সেবার সঙ্গে যুক্ত কর্মীরা ছাড়া সবাইকে ঘরে থাকতে হবে।

গত ফেব্রুয়ারি থেকে নিউজিল্যান্ডে করোনাভাইরাসে প্রাণ হারিয়েছে সর্বমোট ২২ জন। শুরুতেই লকডাউন, সীমান্তে কড়া নিয়ন্ত্রণ, স্বাস্থ্য বিষয়ে কার্যকর বার্তা পৌঁছে দেওয়া, জোরদার টেস্ট ও ট্রেস কর্মসূচির মাধ্যমে নিউজিল্যান্ড এই ভাইরাস ঠেকিয়ে রাখতে সফল হয়েছে।

এদিকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মহাপরিচালক টেড্রোস অ্যাধনম গেব্রেয়েসুস বলেছেন, করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণ শুধু তখনই সম্ভব যদি বিভিন্ন দেশের সরকার জনগোষ্ঠীর ভেতর সংক্রমণ রোধে ব্যবস্থা নেয়। তিনি বলছেন, টিকা ছাড়া এই ভাইরাস নিয়ন্ত্রণের মূল উপায় হলো হাত ধোয়া, দূরত্ব বজায় রাখা, মাস্ক পরা। সেই সঙ্গে কঠোরভাবে পরীক্ষা করা, চিহ্নিত করা এবং আলাদা করে ফেলা।

প্রথমবারের মতো লকডাউন ঘোষণা ভুটানে : গতকাল ভুটানের এক বাসিন্দার শরীরে করোনার ধরা পড়ার পরপরই দেশজুড়ে লকডাউন ঘোষণা করা হয়। সম্প্রতি ওই নারী বিদেশ থেকে ভুটানে ফেরেন। তিনি দেশে ফেরার পর ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে ছিলেন। কোয়ারেন্টিন থেকে ছাড়া পাওয়ার পরই তাঁর দেহে করোনার উপস্থিতি শনাক্ত হয়।

কয়েক দিনে ওই নারী রাজধানী থিম্পুতে অনেক মানুষের সংস্পর্শে এসেছিলেন বলে জানা গেছে। ২৭ বছর বয়সী ওই নারী কুয়েত সফর শেষে দেশে ফেরার পরই কোয়ারেন্টিনে ছিলেন। কোয়ারেন্টিন শেষে তাঁর দেহে পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর করোনা নেগেটিভ ধরা পড়ে। কিন্তু সোমবার একটি ক্লিনিকে ফের টেস্ট করার পর তাঁর দেহে করোনার উপস্থিতি ধরা পড়েছে।

নতুন করে ওই নারী করোনায় আক্রান্ত হওয়ায় হিমালয়ের দেশ ভুটানে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছে ১১৩ জন। দেশটিতে এখনো করোনায় আক্রান্ত হয়ে কারো মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়নি। দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে ভুটানেই সংক্রমণ সবচেয়ে কম।

বৈশ্বিক পরিসংখ্যানভিত্তিক ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্য অনুযায়ী, গতকাল পর্যন্ত বৈশ্বিক মোট আক্রান্তের সংখ্যা দুই কোটি চার লাখ ছাড়িয়েছে। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছে প্রায় এক কোটি ৩৪ লাখ মানুষ। প্রাণহানির সংখ্যা সাত লাখ ৪২ হাজার ছাড়িয়েছে। সূত্র : বিবিসি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা