kalerkantho

মঙ্গলবার  । ২০ শ্রাবণ ১৪২৭। ৪ আগস্ট  ২০২০। ১৩ জিলহজ ১৪৪১

যুক্তরাজ্যে শনাক্তের ৭৮ শতাংশই উপসর্গহীন

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১২ জুলাই, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হিসেবে যতজন বিশ্বে শনাক্ত হয়েছে, সংক্রমিতের সংখ্যা এর অনেক বেশি বলে অনেক গবেষকের দাবিকে ভিত্তি দিচ্ছে যুক্তরাজ্যের তথ্য। একটি জরিপের ওপর ভিত্তি করে যুক্তরাজ্যের পরিসংখ্যান বিভাগ বলছে, যতজনের দেহে নতুন করোনাভাইরাসের অস্তিত্ব ধরা পড়েছে, এর ৭৮ শতাংশেরই নমুনা পরীক্ষার সময় কোনো উপসর্গ ছিল না।

যার অর্থ উপসর্গহীন এমন অনেক থাকতে পারে, যারা ভাইরাস সংক্রমিত হলেও অসুস্থ না হওয়ায় নমুনা পরীক্ষা না করে স্বাভাবিক জীবনযাপনে রয়েছে। আবার অশনাক্ত এই ব্যক্তিরা রোগ বহনের ঝুঁকিও তৈরি করছে। জন হপকিন্স ইউনিভার্সিটির তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হিসেবে এক কোটি ২৫ লাখ মানুষকে শনাক্ত করা হয়েছে। এর মধ্যে মারা গেছে পাঁচ লাখ ৬০ হাজার মানুষ।

যুক্তরাজ্যে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা পৌনে তিন লাখের বেশি, এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ৪৪ হাজার জনের। দেশটির অফিস ফর ন্যাশনাল স্ট্যাটিস্টিকসের (ওএনএস) পরিসংখ্যান উদ্ধৃত করে বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শনাক্ত রোগীদের মধ্যে নমুনা পরীক্ষার সময় মাত্র ২২ শতাংশের রোগের লক্ষণ ছিল। নমুনা পরীক্ষার সময় ৭৮ শতাংশের কোনো উপসর্গ ছিল না।

উপসর্গহীন ব্যক্তিরা সেবাকেন্দ্রে এই সংক্রমণ ছড়াতে ভূমিকা রাখছে বলে সম্প্র্রতি মন্তব্য করেন যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। তিনি উষ্মা প্রকাশ করে বলেন, বেশির ভাগ সেবাকেন্দ্র কোনো নির্দেশনা মেনে চলেনি।

এই বক্তব্যের অর্থ ব্যাখ্যা করে পরে তাঁর সহকারী অলোক শর্মা বলেন, ‘ওই সময় কেউই আসলে সঠিক বিধি বুঝে উঠতে পারেনি। কারণ এই মহামারির শুরুতে কারোরই উপসর্গহীন আক্রান্ত ব্যক্তিদের থেকে সংক্রমণ ঝুঁকির বিষয়টি নিয়ে ধারণা ছিল না।’ যুক্তরাজ্যে স্বাস্থ্য ও সমাজকর্মীরাই এই ভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছেন বেশি। সূত্র : বিবিসি।

মন্তব্য