kalerkantho

শনিবার । ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭। ১৫ আগস্ট ২০২০ । ২৪ জিলহজ ১৪৪১

চীনের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক আদালতে উইঘুর গোষ্ঠী

অভিযোগে বলা হয়েছে ওই সব সম্প্রদায়ের মানুষ নজরদারি, অপহরণ, নির্যাতন, কারাবন্দিত্ব আর গণহত্যার শিকার হচ্ছে

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৮ জুলাই, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চীনের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে (আইসিসি) লিখিত অভিযোগ করেছে দেশটির সংখ্যালঘু নৃতাত্ত্বিক উইঘুর সম্প্রদায়। তারা চীনের বিরুদ্ধে বেশ কিছু গুরুতর অভিযোগ করে সেসবের তদন্তের আবেদন জানিয়েছে।

ওই অভিযোগে চীনের প্রেসিডেন্ট শি চিনপিংসহ ৩০ জনের বেশি কর্মকর্তাকে বিভিন্ন গুরুতর অপরাধের জন্য দায়ী করা হয়েছে। চীনের কমিউনিস্ট পার্টির বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক আদালতের দ্বারস্থ হওয়ার ঘটনা এটাই প্রথম, যদিও আইসিসির বিচারব্যবস্থা চীন স্বীকার করে না।

উইঘুরদের নির্বাসিত দুই সংগঠনের হয়ে গত সোমবার লন্ডনভিত্তিক আইনজীবীরা আইসিসিতে লিখিত অভিযোগ করেন। চীনের জিংজিয়াংকে ইস্ট তুর্কিস্তান অভিহিত করে উইঘুররা। সেই নামের ভিত্তিতে গড়া ইস্ট তুর্কিস্তান গভর্নমেন্ট ইন এক্সাইল (ইটিজিই) ও ইস্ট তুর্কিস্তান ন্যাশনাল অ্যাওকেনিং মুভমেন্ট (ইটিএনএএম) শীর্ষক দুই সংগঠন আইসিসির কাছে অভিযোগ করেছে। ৮০ পৃষ্ঠার লিখিত অভিযোগে বলা হয়েছে, উইঘুর, কাজাখ, কিরগিজ ও অন্যান্য তুর্কি জনগণের বিরুদ্ধে চীন যেসব অপরাধ করছে, সেগুলোর তদন্ত হওয়া উচিত। কী ধরনের অপরাধের তদন্ত করার কথা বলা হচ্ছে, সেটাও সুনির্দিষ্ট করা হয়েছে অভিযোগে। বলা হয়েছে, ওই সব সম্প্রদায়ের মানুষ নজরদারি, অপহরণ, নির্যাতন, কারাবন্দিত্ব আর গণহত্যার শিকার হচ্ছে। তাদের সংখ্যা নিয়ন্ত্রণে জোর করে তাদের ওপর জন্ম নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা আরোপ করা হচ্ছে, এমনকি তাদের বন্ধ্যা করে দেওয়া হচ্ছে। সূত্র : নিউ ইয়র্ক টাইমস।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা