kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ১ ডিসেম্বর ২০২০। ১৫ রবিউস সানি ১৪৪২

অনলাইনে ক্লাস করা বিদেশি শিক্ষার্থীদের যুক্তরাষ্ট্র ছাড়তে হবে

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৮ জুলাই, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



অনলাইনে ক্লাস করা সম্ভব হলে বিদেশি শিক্ষার্থীদের যুক্তরাষ্ট্র ছাড়তে হবে। আগামী শরৎ থেকে এই সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে বলে জানিয়েছে দেশটির ইমিগ্রেশন অ্যান্ড কাস্টমস এনফোর্স (আইসিই)। আর এ সিদ্ধান্ত এড়াতে হলে শিক্ষার্থীদের সশরীরে উপস্থিত থাকতে হয় এমন কোনো কোর্সে অন্তর্ভুক্ত হতে হবে। গত সোমবার এ কথা জানায় আইসিই।

আইসিই জানিয়েছে, সিদ্ধান্ত না মানলে শিক্ষার্থীদের দেশে ফেরত পাঠানো হবে। তবে তাদের এই সিদ্ধান্তের কারণে কত শিক্ষার্থী ক্ষতিগ্রস্ত হবে তা জানা যায়নি। প্রতিবছর বিপুলসংখ্যক শিক্ষার্থী যুক্তরাষ্ট্রে পড়তে যায়। যুক্তরাষ্ট্রের রাজস্ব আয়ের একটা বড় উৎস বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে শিক্ষার্থীদের পরিশোধ করা শিক্ষাসংক্রান্ত খরচ।

করোনা সংকটের কারণে যুক্তরাষ্ট্রের বেশির ভাগ বিশ্ববিদ্যালয়েই এখন অনলাইনে ক্লাস হচ্ছে। যেমন হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সব কোর্সই অনলাইনে করানো হচ্ছে। এমনকি যেসব শিক্ষার্থী ক্যাম্পাসে থাকে তাদের জন্যও একই কথা প্রযোজ্য। তবে তারা ৪০ শতাংশ শিক্ষার্থীকে ক্যাম্পাসে ফেরার অনুমতি দেবে। এই বিশ্ববিদ্যালয়ের কেনেডি স্কুল অব গভর্নমেন্টের স্নাতক পর্যায়ের শিক্ষার্থী ভ্যালেরিয়া ম্যান্ডিওলা (২৬) বলেন, ‘খুবই অনিশ্চিত একটা পরিস্থিতি। হতাশাজনকও। আমাকে যদি মেক্সিকোতে ফিরে যেতে হয়, যাব। কিন্তু সব বিদেশি শিক্ষার্থীর অবস্থা আমার মতো নয়।’

আইসিই জানায়, যেসব শিক্ষার্থী অনলাইনে পূর্ণাঙ্গ কোর্স করবে বা কোর্সের কারণে যাদের শারীরিকভাবে উপস্থিত থাকতে হবে তারা যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থান করতে পারবে। তবে অনলাইনের শিক্ষার্থীদের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আর ভিসা দেবে না। আগামী শরৎ সেশন থেকে এসব শিক্ষার্থীকে কাস্টমস ও সীমান্ত সুরক্ষা অনুমতিও দেওয়া হবে না।

আইসিই দপ্তরের বিবৃতিতে আরো বলা হয়, এফ-১ ও এম-১ ভিসা নিয়ে এ দেশে থেকে সম্পূর্ণ অনলাইন কোর্স করা যাবে না। অনলাইনে পড়তে হলে এখান থেকে চলে যেতে হবে। নয়তো এমন কোনো জায়গায় নাম নথিভুক্ত করাতে হবে, যেখানে সশরীরে উপস্থিত থেকে ক্লাস করা যাবে। অন্যথায় ওই সমস্ত শিক্ষার্থীর ভিসা প্রত্যাহার করা হবে।

তবে গ্রীষ্মকালীন সেমিস্টার শিক্ষার্থীরা যুক্তরাষ্ট্রে থেকেই কোর্স সম্পন্ন করতে পারবে।

যুক্তরাষ্ট্রের বাণিজ্য দপ্তরের দেওয়া তথ্য মতে, ২০১৮ সালে শুধু বিদেশি শিক্ষার্থীদের কাছ থেকেই দেশটি সাড়ে চার হাজার কোটি ডলার আয় করেছে। সে বছর লেখাপড়া করতে যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থান করছিল ১০ লাখের বেশি শিক্ষার্থী। যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়া বিদেশি শিক্ষার্থীদের মধ্যে চীনাদের সংখ্যাই সবচেয়ে বেশি। এরপর রয়েছে ভারত, দক্ষিণ কোরিয়া, সৌদি আরব ও কানাডা। সূত্র : বিবিসি, সিএনএন।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা