kalerkantho

সোমবার । ২৬ শ্রাবণ ১৪২৭। ১০ আগস্ট ২০২০ । ১৯ জিলহজ ১৪৪১

বিতর্কিত হংকং নিরাপত্তা আইন

বাস্তবায়নের দায়িত্ব পেলেন কট্টর বেইজিংপন্থী নেতা

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৪ জুলাই, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বাস্তবায়নের দায়িত্ব পেলেন কট্টর বেইজিংপন্থী নেতা

হংকংয়ে নবগঠিত নিরাপত্তা সংস্থার (সিকিউরিটি এজেন্সি) প্রধান হিসেবে কট্টর বেইজিংপন্থী নেতা ঝেং ইয়াংশিয়ংকে নিয়োগ দিয়েছে চীন। ঝেং ইয়াংশিয়ং ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট পার্টির আঞ্চলিক নেতা। তবে জমি অধিগ্রহণের এক ঘটনায় সরকারের পক্ষে মধ্যস্থতা করতে গিয়ে আলোচনায় আসেন তিনি।

এদিকে চীনে পাস হওয়া নতুন আইনের অধীনে হংকংয়ের গণতন্ত্রপন্থীদের গ্রেপ্তারের ঘটনায় নিন্দা জানিয়ে মার্কিন কংগ্রেসে একটি বিল পাস হয়েছে।

১৯৯৭ সালে এক চুক্তির মাধ্যমে হংকংকে চীনের কাছে হস্তান্তর করে ব্রিটেন। ওই চুক্তি অনুসারে, হংকং ২০৪৩ সাল পর্যন্ত (৫০ বছর) ‘এক দেশ, দুই ব্যবস্থা’ নীতিতে পরিচালিত হবে। চুক্তির অধীনে হংকংয়ের নিজস্ব আইন আছে; রাজনৈতিক ব্যবস্থাও আলাদা। কিন্তু অনেকের অভিযোগ, চীন নানাভাবে হংকংয়ের গণতান্ত্রিক অধিকার কেড়ে নিচ্ছে।

এ অবস্থায় গত মঙ্গলবার চীনে পাস হয় বিতর্কিত ‘হংকং নিরাপত্তা আইন’। ওই আইনে বিচ্ছিন্নতাবাদ, কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে নাশকতা, সন্ত্রাসী কার্যক্রম এবং বহিরাগত শক্তির সঙ্গে আঁতাত নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এ ধরনের অপরাধের দায়ে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের বিধানও রাখা হয়েছে আইনটিতে। এরই মধ্যে এই আইনে হংকংয়ে বেশ কয়েকজন আন্দোলনকারীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। হংকং ছেড়েছেন বেইজিংবিরোধী আন্দোলনকারীদের শীর্ষস্থানীয় এক নেতা। 

এই আইনটি কার্যকরের দায়িত্ব দিয়ে হংকংয়ে নতুন সিকিউরিটি এজেন্সি খুলেছে চীন। এর প্রধান হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন কট্টর চীনপন্থী ঝেং ইয়াংশিয়ং, যিনি এত দিন দক্ষিণাঞ্চলীয় গুয়াংদং প্রদেশের কমিউনিস্ট পার্টির মহাসচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন। তবে তিনি আলোচনায় আসেন ওই প্রদেশের উকান এলাকার এক ঘটনায়। সেখানে ২০১১ সালে সরকারের জমি অধিগ্রহণের ঘটনায় ক্ষতিপূরণ দাবিতে বিক্ষোভ শুরু করে স্থানীয়রা। সূত্র : বিবিসি, টাইমস অব ইন্ডিয়া, এএফপি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা