kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৩ আষাঢ় ১৪২৭। ৭ জুলাই ২০২০। ১৫ জিলকদ  ১৪৪১

কঙ্গোতে ঔপনিবেশিক নির্যাতনের জন্য বেলজিয়ামের রাজার ‘দুঃখ’ প্রকাশ

সময় এসেছে সত্যের পথে সওয়ার হওয়ার

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১ জুলাই, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



সময় এসেছে সত্যের পথে সওয়ার হওয়ার

কঙ্গোর বাসিন্দারা বেলজিয়ামের ঔপনিবেশিক আমলে যেসব নির্যাতনের শিকার হয়েছে, সেগুলোর জন্য ‘গভীরতম দুঃখ’ প্রকাশ করেছেন বেলজিয়ামের রাজা ফিলিপ। গতকাল মঙ্গলবার কঙ্গোর ৬০তম স্বাধীনতা দিবসে তিনি ওই ভূখণ্ডে বেলজিয়ামের দুঃশাসনের কথা স্বীকার করে নেন।

যুক্তরাষ্ট্রে গত ২৫ মে পুলিশি হেফাজতে আফ্রিকান-আমেরিকান নাগরিক জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যুর কারণে উসকে উঠা বর্ণবাদবিরোধী আন্দোলন বেলজিয়ামেও ছাপ ফেলেছে। বেলজীয়রা তাদের বিতর্কিত নেতাদের মূর্তি ধ্বংস করছে। কঙ্গো শাসনকারী বেলজীয় রাজা দ্বিতীয় লিওপল্ডের বেশ কয়েকটি মূর্তিও বিক্ষোভকারীদের রোষের শিকার হয়েছে। গতকাল বেলজিয়ামের ঘেন্ট শহরে রাজা দ্বিতীয় লিওপল্ডের আরেকটি মূর্তি অপসারণের মধ্য দিয়ে বর্ণবাদবিরোধী আন্দোলনকারীরা কঙ্গোর স্বাধীনতা দিবস উদ্‌যাপন করার কথা। রাজা দ্বিতীয় লিওপল্ডের ১৮৬৫-১৯০৯ শাসনামলে তৎকালীন জায়ারে কৃষ্ণাঙ্গ শ্রমিকদের হাত-পা কেটে নেওয়াসহ নানা দুর্ভোগের রেকর্ড রয়েছে।

দ্বিতীয় লিওপল্ডের নামোল্লেখ না করে রাজা ফিলিপ গতকাল ডেমোক্রেটিক রিপাবলিক অব কঙ্গোর প্রেসিডেন্ট ফেলিক্স তিশেকেদিকে পাঠানো এক চিঠিতে লিখেছেন, ‘আমাদের সমাজে এখনো রয়ে যাওয়া বৈষম্যের কারণে অতীতের যেসব ক্ষত আজ আবার পীড়াদায়ক হয়ে উঠেছে, সেগুলোর জন্য আমি গভীরতম দুঃখ প্রকাশ করছি।’ সূত্র : এএফপি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা