kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৩ আষাঢ় ১৪২৭। ৭ জুলাই ২০২০। ১৫ জিলকদ  ১৪৪১

রাশিয়ার নদীতে ছড়াল তেল

জরুরি অবস্থা জারি

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৫ জুন, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জরুরি অবস্থা জারি

জ্বালানি তেলের ট্যাংক ফেটে রাশিয়ার সুমেরু বৃত্তের একটি নদীতে ২০ হাজার টন ডিজেল ছড়িয়ে পড়েছে। এতে দূষণের কবলে পড়েছে আনুমানিক ৩৫০ বর্গকিলোমিটার এলাকা। পরিস্থিতি সামাল দিতে ওই অঞ্চলে জরুরি অবস্থা জারি করেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

তেলের ট্যাংকটি গত শুক্রবার সাইবেরিয়ার নারিস্ক শহরের পাশে একটি বিদ্যুেকন্দ্রে ফেটে যায়। কিন্তু সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বিষয়টি টের পান দুই দিন পর। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন পুতিন। এরই মধ্যে বিদ্যুেকন্দ্রটির এক ব্যবস্থাপককে আটকও করা হয়েছে। ওই বিদ্যুেকন্দ্রটি বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় নিকেল ও পালাডিয়াম উৎপাদনকারী কম্পানি নারিস্ক নিকেলের একটি সহযোগী প্রতিষ্ঠানের মালিকানাধীন। ট্যাংকটি যে পিলারগুলোর ওপর অবস্থান করছিল  সেগুলো ডুবে গিয়ে শুক্রবার ওই বিপর্যয় ঘটে। সেখান থেকে ধীরে ধীরে আমবারনায়া নদীতে তেল ছড়িয়ে পড়ে। ফলে নদীর পানি লাল বর্ণ ধারণ করতে শুরু করে। গুরুতর এ বিষয়টি দুই দিন ধরে সংশ্লিষ্ট কোনো কর্মকর্তারই চোখে পড়েনি। পরে বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে রবিবার ওই অঞ্চলের গভর্নর আলেক্সান্ডার উস বিষয়টি জানতে পারেন।

এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ পুতিন গত বুধবার এক ভিডিও কনফারেন্সে বলেন, ‘সরকারি সংস্থাগুলো কেন দুই দিন পর ঘটনা টের পাবে? আমরা কি তাহলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে জরুরি অবস্থা সম্পর্কে জানব?’ এ সময় বিদ্যুেকন্দ্রটির মালিকের সহযোগী প্রতিষ্ঠান নরিল্রক নিকেল কম্পানিরও কড়া সমালোচনা করেন তিনি। এক বিবৃতিতে কম্পানিটি দাবি করেছে, ঘটনাটি তারা ‘সময়মতো ও সঠিকভাবে’ সামাল দিতে পেরেছে। সূত্র : বিবিসি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা