kalerkantho

সোমবার । ৬ আশ্বিন ১৪২৭ । ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০। ৩ সফর ১৪৪২

থামেনি অস্ত্রের ঝনঝনানি

মহামারির মধ্যেও বাস্তুচ্যুত ছয় লাখ ৬১ হাজার মানুষ

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৩ মে, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



করাল মহামারির মধ্যেও থামেনি বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে চলমান সশস্ত্র সংঘাত, বন্ধ হয়নি প্রাণ বাঁচানোর তাগিদে ভীতসন্ত্রস্ত্র পলায়নপর মানুষের ঢল। ফলে করোনাভাইরাসের ছোবল সত্ত্বেও গত দুই মাসে বাস্তুচ্যুত হয়েছে ছয় লাখ ৬১ হাজার মানুষ।

সংঘাতজনিত বাস্তুহারাদের ওই সংখ্যা প্রকাশ করে এর জন্য বিশ্বের শক্তিধর দেশগুলোকে দায়ী করেছে নরওয়েজীয় রিফিউজি কাউন্সিল (এনআরসি)।

চীনের উহান থেকে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসে এরই মধ্যে বিশ্বব্যাপী তিন লাখের বেশি মানুষ মারা গেছে। মানবিক কারণে, একই সঙ্গে সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণের স্বার্থে বিশ্বে সংঘাতরত সব গোষ্ঠীর প্রতি অস্ত্রবিরতির আহ্বান জানান জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস। গত ২৩ মার্চ তিনি ওই আহ্বান জানানোর পরও থামেনি সংঘাত। বিশ্বের বেশির ভাগ দেশে লকডাউন জারি থাকলেও দ্বন্দ্বরত গোষ্ঠীগুলো অস্ত্রবাজি অব্যাহত রাখে। আর তাদের লড়াই থেকে বাঁচতে গত ২৩ মার্চের পর থেকে ছয় লাখ ৬১ হাজার মানুষ ঘরবাড়ি ছাড়তে বাধ্য হয়েছে বলে জানায় এনআরসি।

সংঘাতকবলিত মোট ১৯টি দেশের হিসাব তুলে ধরে গতকাল শুক্রবারের প্রতিবেদনে এনআরসি আরো জানায়, সবচেয়ে বেশি মানুষ বাস্তুচ্যুত হয়েছে ডেমোক্রেটিক রিপাবলিক অব কঙ্গোয়। দেশটির সামরিক বাহিনী ও বিদ্রোহীদের মধ্যকার লড়াইয়ের কারণ চার লাখ ৮২ হাজার মানুষ ঘরবাড়ি ছেড়ে পালাতে বাধ্য হয়েছে।

মধ্যপ্রাচ্যের দেশ ইয়েমেনে বাস্তুচ্যুত হয়েছে ২৪ হাজার মানুষ। এ ছাড়া আফগানিস্তান, সেন্ট্রাল আফ্রিকান রিপাবলিক, সিরিয়া, সোমালিয়া ও মিয়ানমারে ১০ হাজারের বেশি মানুষকে বাস গোটাতে হয়েছে। চরম ক্ষতিগ্রস্ত দেশের তালিকায় রয়েছে চাদ ও নাইজার। সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা