kalerkantho

শনিবার । ২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ৬ জুন ২০২০। ১৩ শাওয়াল ১৪৪১

মহামারিতে মৃতদের শ্রদ্ধা

তিন মিনিট নীরব চীন

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৫ এপ্রিল, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



তিন মিনিট নীরব চীন

চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরটি থেকেই গত ডিসেম্বরে ছড়াতে শুরু করে করোনা। গতকাল উহানসহ পুরো চীনে করোনায় মৃতদের শ্রদ্ধায় তিন মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। এ সময় হাসপাতাল থেকে চিকিৎসাকর্মীরাও বের হয়ে এসে নীরবতা পালন করেন। ছবি : এএফপি

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে চীনে মারা যাওয়া সবার প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে গতকাল শনিবার গোটা দেশ তিন মিনিটের জন্য থেমে যায়। চীনবাসী ওই তিন মিনিটের জন্য সব কাজ বন্ধ করে মহামারিতে মৃতদের স্মরণ করে।

স্থানীয় সময় গতকাল সকাল ১০টায় চীনজুড়ে যে যেখানে ছিল, সে সেখানেই থেমে যায়। পথচারীদের সঙ্গে থেমে যায় চলমান সব যান। জাহাজগুলোয় বাজানো হয় হর্ন। বিমানবাহিনী সাইরেন বাজিয়ে এ কর্মসূচিতে অংশ নেয়। তংজি হাসপাতালের কর্মীরা ভবনের বাইরে অবনত মস্তকে তিন মিনিট দাঁড়িয়ে নীরবতা পালন করেন।

প্রেসিডেন্ট শি চিনপিংও গতকাল নীরবতা পালন ও শ্রদ্ধা জ্ঞাপন কর্মসূচিতে অংশ নেন। তিনি ও সরকারি কর্মকর্তাদের একটি দল গতকাল রাজধানী বেইজিংয়ে সরকারি দপ্তর প্রাঙ্গণে তিন মিনিট নীরবে দাঁড়িয়ে থাকেন। এ সময় পতাকা অর্ধনমিত রাখা হয়।

চীনের সব রাস্তায় পথচারীরা যখন করোনাভাইরাসে মৃতদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাচ্ছিল, তখন টহল পুলিশও থেমে গিয়েছিল, বর্ম নামিয়ে মাথা নিচু করে দাঁড়িয়ে ছিল তারা। পাতাল ট্রেন থেমে যাওয়ার পর যাত্রীরা উঠে দাঁড়িয়ে ছিল শ্রদ্ধাবনত মস্তকে।

সরকারি কর্মকর্তারা বলেন, করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের চিকিৎসা দিতে গিয়ে যেসব চিকিৎসাকর্মী মারা গেছেন, গতকালের কর্মসূচির মধ্য দিয়ে তাঁদের শ্রদ্ধা জানানোর সুযোগ মিলেছে। ওই চিকিৎসাকর্মীদের ইতিমধ্যে ‘শহীদ’ আখ্যা দিয়েছে সরকার। তাঁদের মধ্যে রয়েছেন লি ওয়েনলিয়াং, যিনি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ মহামারি আকার ধারণ করার আগেই হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন। কিন্তু তাঁর কথায় সতর্ক হওয়ার পরিবর্তে উল্টো তাঁর কণ্ঠ রোধ করা হয়। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ফেব্রুয়ারিতে মারা যান তিনি।

ওয়েনলিয়াংয়ের মৃত্যুর আগেই বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়ে করোনাভাইরাস। এতে আক্রান্তের সংখ্যা ১১ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। মারা গেছে ৬০ হাজারের বেশি মানুষ। চীনে এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে তিন হাজার ৩৩০ জন। তাদের সবার প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে গতকাল তিন মিনিট নীরবতা পালন করে চীনবাসী।

গতকাল চীনে ছিল এক বিশেষ ছুটির দিন। কিং মিং শীর্ষক এ বার্ষিক ছুটির দিনে চীনের মানুষ তাদের মৃত স্বজনদের সমাধিতে শ্রদ্ধা জানাতে যায়। শ্রদ্ধা প্রদর্শনের প্রতীক হিসেবে তারা সমাধিগুলোয় ফুল দেয়, প্রদীপ জ্বালায়, খাবার দেয়। তবে এবার মহামারির মধ্যে এ কর্মসূচি পালনে জনগণকে নিরুৎসাহ করে সরকার। সমাধিগুলোয় সশরীরে হাজির হওয়ার পরিবর্তে ঘরে বসে প্রয়াত প্রিয়জনদের স্মরণ করতে জনগণকে আহ্বান জানানো হয়।

মহামারি পরিস্থিতি মাথায় রেখে সমাধিক্ষেত্রগুলোর কর্তৃপক্ষ ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নিয়েছে। মৃত স্বজনদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে আগ্রহী পরিবারের হয়ে সমাধিক্ষেত্রের কর্মীরাই রীতিনীতিগুলো পালন করবেন। পরিবারের সদস্যরা ওই সব কর্মসূচি পালনের দৃশ্য অনলাইনে সরাসরি দেখতে পাবে। এ ছাড়া ‘ভার্চুয়াল’ সমাধিতে ডিজিটাল প্রদীপ প্রজ্বালনের আয়োজনও করেছে বিভিন্ন ওয়েবসাইট। সূত্র : এএফপি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা