kalerkantho

শুক্রবার । ১৪ কার্তিক ১৪২৭। ৩০ অক্টোবর ২০২০। ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

বিধি-নিষেধে বন্দি বিশ্বের অর্ধেক মানুষ

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৭ মার্চ, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাস মোকাবেলায় বিশ্বের বিভিন্ন দেশের নেওয়া কঠোর পদক্ষেপের কারণে বিশ্বের অর্ধেক মানুষ কোনো না কোনোভাবে বিধি-নিষেধের বেড়াজালে বন্দি জীবন কাটাচ্ছে। এরই মধ্যে কভিড-১৯-এ আক্রান্তের সংখ্যা সাড়ে সাড়ে চার লাখ পেরিয়ে গেছে; মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ২১ হাজার।

চারদিকে আতঙ্ক ছড়ানো এ পরিস্থিতিতে জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস বলেছেন, একটি সমন্বিত বৈশ্বিক প্রচেষ্টাই শুধু পারে প্রাণঘাতী এ ভাইরাসের প্রকোপ থামাতে। স্কাই নিউজ এক বিশ্লেষণে দেখিয়েছে, ৪১টি দেশের প্রায় ৩০০ কোটি মানুষ করোনাভাইরাসের কারণে জারি করা বিধি-নিষেধের আওতায় পড়েছে। কোথাও কোথাও অফিস করতে হচ্ছে বাড়ি থেকে। কোথাও আবার কড়াকড়ি আরোপ করা হয়েছে যানবাহনে, রাশ পড়েছে দৈনন্দিন জীবনব্যবস্থায়।

যেসব দেশে পুরোপুরি ‘লকডাউন’ করা হয়েছে, অর্থাৎ নাগরিকদের বাড়ির বাইরে যেতে নিষেধ করা হয়েছে, সেসব দেশের দেড় শ কোটি মানুষ ?পুরোপুরি বন্দিদশার মধ্যে পড়েছে। ইতালির পর স্পেনেও কভিড-১৯-এ মৃত্যুর সংখ্যা চীনকে ছাড়িয়েছে; তিন মাস আগে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান থেকেই ভাইরাসটি ছড়াতে শুরু করেছিল। ইউরোপের মধ্যে ফ্রান্সে মৃতের সংখ্যা হাজারের ঘর অতিক্রম করে দেড় হাজারের দিকে ছুটছে। আক্রান্তের সংখ্যায় তৃতীয় স্থানে উঠে এসেছে যুক্তরাষ্ট্র, মৃত্যুর সংখ্যায় হাজারের ঘর ছাড়ানো আরেকটি দেশ হয়ে দাঁড়িয়েছে তারা।

ভাইরাসের কারণে বিপর্যস্ত মার্কিন অর্থনীতিকে টেনে তুলতে যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেস ২ দশমিক ২ ট্রিলিয়ন ডলারের ত্রাণ প্রকল্প ঘোষণার পর দেশটির শেয়ারবাজারের অবস্থা ফিরতে শুরু করেছে। রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসিতে দেশটির প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, নিউ ইয়র্কের সামনে কয়েকটি ‘কঠিন সপ্তাহ’ আসছে। যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ভাইরাস উপদ্রুত এ অঙ্গরাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা এরই মধ্যে ৩০ হাজার পেরিয়ে গেছে।

যেসব এলাকায় ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব কম, সেসব এলাকার মানুষ কবে কাজে ফিরতে পারবে, সে বিষয়ে দ্রুত সিদ্ধান্ত জানাবেন বলেও ঘোষণা দিয়েছেন ট্রাম্প। ‘আমাদের দেশকে ফের সচল করতে চাই। কোনো তাড়াহুড়া কিংবা জোর করে নয়। ইস্টারের (১২ এপ্রিল) আগেই আমাদের কিছু সিদ্ধান্ত নিতে হবে, এর আগেও হতে পারে,’ বলেছেন নভেম্বরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারে তাঁর আমলে মার্কিন অর্থনীতির শক্তিশালী অবস্থানের কথা বারবার বলে আসা ট্রাম্প। সূত্র : রয়টার্স।

মন্তব্য