kalerkantho

সোমবার । ২৩ চৈত্র ১৪২৬। ৬ এপ্রিল ২০২০। ১১ শাবান ১৪৪১

কাশ্মীর নিয়ে জাতিসংঘের মধ্যস্থতার প্রস্তাব ভারতের প্রত্যাখ্যান

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



কাশ্মীর নিয়ে জাতিসংঘের মধ্যস্থতার প্রস্তাব ভারতের প্রত্যাখ্যান

কাশ্মীর সংকট সমাধানে ভারত-পাকিস্তানের মধ্যস্থতায় জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেসের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছে নয়াদিল্লি। ভারত স্পষ্ট করে জানিয়েছে, বিষয়টি নিয়ে কথা বলার একমাত্র স্থান পাকিস্তানের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় আলোচনা। এ ক্ষেত্রে তৃতীয় পক্ষের হস্তক্ষেপ চায় না তারা। এর আগে বিষয়টি নিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও মধ্যস্থতার আগ্রহ প্রকাশ করেন। সে প্রস্তাবও একই যুক্তিতে প্রত্যাখ্যান করে দিল্লি।

গুতেরেস গত রবিবার চার দিনের পাকিস্তান সফর শুরু করেন। ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে মধ্যস্থতার বিষয়টি তখনই ওঠে। প্রথম দিনই তিনি পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কোরেশির সঙ্গে বৈঠক করেন। মূলত এই বৈঠকের পরই সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি ভারত-পাকিস্তান দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, ‘কাশ্মীরের বর্তমান পরিস্থিতি এবং নিয়ন্ত্রণরেখার সংঘাত নিয়ে আমি অত্যন্ত উদ্বিগ্ন। শুরু থেকেই এ ব্যাপারে সাহায্য করতে চেয়েছিলাম। দুই দেশ রাজি থাকলে আমি এ নিয়ে মধ্যস্থতা করতে চাই।’ ভারত-পাকিস্তান দুই দেশেরই আরো সংযত হওয়া উচিত বলেও মন্তব্য করেন গুতেরেস। আফগানিস্তানের শরণার্থীদের নিয়ে একটি সম্মেলনে যোগ দিতে পাকিস্তান সফর করছেন গুতেরেস।

তবে গুতেরেসের এই প্রস্তাব তৎক্ষণিকভাবে নাকচ করে দেয় দিল্লি। ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র রবিশ কুমার বলেন, ‘ভারত নিজের অবস্থান থেকে একচুলও সরেনি। জম্মু-কাশ্মীর চিরকাল ভারতের অখণ্ড অংশ ছিল, আছে এবং থাকবে। গায়ের জোরে, বেআইনিভাবে পাকিস্তান যে অঞ্চলগুলো দখল করে রেখেছে, সেগুলো মুক্ত করতে বরং পদক্ষেপ নেওয়া হোক।’

ভারত ও পাকিস্তান দ্বিপক্ষীয় সমস্যাগুলো নিজেরাই মিটিয়ে নেবে এবং এ ব্যাপারে তৃতীয় পক্ষের হস্তক্ষেপ একেবারেই বরদাশত করা হবে না বলেও সাফ জানিয়ে দেন রবিশ কুমার। তাঁর মতে, এর চেয়ে জম্মু-কাশ্মীরসহ একাধিক অঞ্চলে সীমান্ত সন্ত্রাস চালানোয় পাকিস্তানের ভূমিকা নিয়ে আলোচনা করতে পারতেন গুতেরেস।

সন্ত্রাস দমনে উপযুক্ত পদক্ষেপ গ্রহণ না করার অভিযোগ তুলে কয়েক বছর ধরে পাকিস্তানের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক বাতিল করে আসছে ভারত। গত বছর ফেব্রুয়ারি মাসে কাশ্মীরের পুলওয়ামায় আধাসামরিক বাহিনীর সদস্যবাহী গাড়িবহর লক্ষ্য করে সন্ত্রাসী হামলার পর এর সঙ্গে পাকিস্তানভিত্তিক জঙ্গিদের সম্পর্ক আছে বলে দাবি করে ভারত। পাল্টা ব্যবস্থা হিসেবে বালাকোট ও পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীরে জঙ্গিবিরোধী অভিযান চালায় তারা। সেই নিয়ে দুই দেশের মধ্যে সংঘাত পরিস্থিতি দেখা দেয়।

এর মধ্যেই গত বছর আগস্টে জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা রদ করে উপত্যকাকে দুটি পৃথক কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ভাগ করার সিদ্ধান্ত নেয় ভারত সরকার। শুরু থেকেই এর বিরোধিতা করে আসছে পাকিস্তান। এ নিয়ে আন্তর্জাতিক মহলেও ভারতকে কোণঠাসা করার চেষ্টা চালিয়েছে তারা। এরই একটি অংশ হিসেবে সম্প্রতি ট্রাম্প দুই দেশের মধ্যে মধ্যস্থতা করার প্রস্তাব দেন। আর এবার দিলেন গুতেরেস। আগামী সপ্তাহে ভারত সফরে আসছেন ট্রাম্প। এর আগেই পাকিস্তানে এলেন গুতেরেস। ধারণা করা হচ্ছে, ভারত সফর শুরুর আগে এর মধ্য দিয়েই ট্রাম্পের কাছে একটি বার্তা দিলেন গুতেরেস। সূত্র : জিয়ো নিউজ।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা