kalerkantho

শনিবার । ১০ ফাল্গুন ১৪২৬ । ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ২৮ জমাদিউস সানি ১৪৪১

ওমর কেন বন্দি? কাশ্মীরকে নোটিশ সুপ্রিম কোর্টের

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ওমর কেন বন্দি? কাশ্মীরকে নোটিশ সুপ্রিম কোর্টের

জননিরাপত্তা আইনে (পিএসএ) কেন বন্দি ওমর আবদুল্লাহ, তা নিয়ে জম্মু ও কাশ্মীর প্রশাসনের জবাবদিহি চান সুপ্রিম কোর্ট। ওমরের বোন সারা আবদুল্লাহ পাইলটের আবেদনের ভিত্তিতে গতকাল শুক্রবার রাজ্য প্রশাসনকে নোটিশ দিলেন শীর্ষ আদালত। দুই সপ্তাহের মধ্যে এই নোটিশের জবাব দিতে হবে। যদিও এই আইনের আওতায় ওমরের বন্দিত্ব বৈধ কি না, তা বিবেচনা করে দেখবেন সুপ্রিম কোর্ট।

এদিন সুপ্রিম কোর্টে বিচারপতি অরুণ মিশ্রের নেতৃত্বে গঠিত বেঞ্চে সারার আবেদনের শুনানি হয়। শুনানির পর জম্মু ও কাশ্মীর প্রশাসনকে নোটিশ পাঠিয়েছেন শীর্ষ আদালত। আগামী ২ মার্চ ফের এই মামলার শুনানি। যদিও সারার আইনজীবী কপিল সিব্বলের অনুরোধ ছিল, আগামী মাসের আগেই এই মামলার পরবর্তী শুনানি হোক। তবে সেই আরজি খারিজ করে আগামী মাসে এই মামলার পরবর্তী শুনানি ধার্য করেছেন শীর্ষ আদালত। এদিনের শুনানির পর ওমরের বোন সারা বলেন, ‘আশা করছি, শিগগিরই (ওমরের) মুক্তি হবে। বিচারব্যবস্থার ওপর আমাদের পূর্ণ আস্থা রয়েছে। আশা করি, ভারতের বাকি অংশের মতোই কাশ্মীরের মানুষজনও সমান অধিকার পাবে। সেদিনের অপেক্ষায় রয়েছি।’

গত বছরের ৫ আগস্ট সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ রদ করে জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বিলোপের পর থেকেই রাজ্যের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লাহ, ফারুক আবদুল্লাহ, মেহবুবা মুফতিসহ একাধিক রাজনীতিককে আটক করা হয়েছিল। সে সময় থেকেই গৃহবন্দি ওমর। গত সপ্তাহে ওমর ও মেহবুবার বিরুদ্ধে জননিরাপত্তা আইনও প্রয়োগ করা হয়। ওই আইন বলে, যেকোনো ব্যক্তিকে বিনা বিচারে তিন থেকে ছয় বছর আটক করে রাখা যাবে। ওমরের বিরুদ্ধে অভিযোগ, কাশ্মীরে জঙ্গি কার্যকলাপ তুঙ্গে থাকাকালীন এবং জঙ্গিদের ভোট বয়কটের ডাকের মধ্যেও নির্বাচনী প্রক্রিয়ায় আমজনতাকে টেনে আনার ক্ষমতা ছিল তাঁর। তা থেকেই বোঝা যায়, মানুষকে প্রভাবিত করার ক্ষমতা রয়েছে তাঁর। প্রশাসনের আরো অভিযোগ, ওমর চরমপন্থী ভাবনায় বিশ্বাসী এবং তা কাজে পরিণত করার ক্ষমতা রাখেন। যদিও এই অভিযোগের পক্ষে কোনো প্রমাণ দিতে পারেনি প্রশাসন। সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা